সংবাদ শিরোনাম
পদ্মায় অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন দুই শতাধিক লঞ্চযাত্রী | মানিকগঞ্জে সাংবাদিকদের উপর হামলা, আটক ১ | স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রসূতি নারীকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ নার্সদের বিরুদ্ধে | স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: ফরিদপুরে এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড | এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণকাণ্ডে আরেক ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার | ‘নারীর দিকে আড়চোখে তাকাবে, এমন কর্মী ছাত্রলীগে নেই’- লেখক | এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগকর্মী রনির পর গ্রেফতার রবিউল | শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন আজ | কুড়িগ্রামে আবারো বন্যা, ঘর-বাড়িতে পানি ঢুকে পড়ায় দুর্ভোগে মানুষজন | এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনায় আদালতে ধর্ষিতা গৃহবধূর জবানবন্দি |
  • আজ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে প্রথম ই-পাসপোর্ট পেলেন সাংবাদিক শাহী

১০:৫২ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২০, ২০২০ রংপুর
epass

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর থেকেঃ দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে ই-পাসপোর্ট দেয়া কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রথম ব্যক্তি হিসেবে দিনাজপুরে বহু কাঙ্খিত ই-পাসপোর্ট পাওয়ার সৌভাগ্য হয়েছে চ্যানেল আইয়ের স্টাফ রিপোর্টার শাহ্ আলম শাহী’র। ১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট আজ বৃহস্পতিবার সকালে সাংবাদিক শাহী’কে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দিয়েছেন দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. বিল্লাল হোসেন।

এর আগে দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে গত ১৫ জুলাই ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন করেন, ই-পাসপোর্ট প্রকল্প ও স্বয়ংক্রিয় বর্ডার ব্যবস্থাপনা প্রকল্প, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের উপ-প্রকল্প পরিচালক উইং কমান্ডার ইঞ্জিনিয়ার পিএসপি মো. রাকিবুল হাসান। চ্যানেল আইয়ের দিনাজপুরস্থ স্টাফ রিপোর্টার শাহ আলম শাহী’কে ই-পাসপোর্ট এর রশিদ দিয়ে প্রাথমিকভাবে দিনাজপুরে ই-পাসপোর্ট এর কার্যকর শুরু করা হয়। এ সময় ই-পাসপোর্ট প্রকল্প ব্যবাস্থাপক মো. মারুফুল আলম দিনাজপুরে ই-পাসপোর্ট এর প্রথম ব্যক্তি হিসেবে সাংবাদিক শাহী’র ডাটাবেজ অনলাইনে লিপিবদ্ধ করেন।

দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. বিল্লাল হোসেন জানান, সর্বাধুনিক ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট (ই-পাসপোর্ট এর মাধ্যমে ই-গেট ব্যবহার করে খুব দ্রুত ও সহজে ভ্রমণকারীরা যাতায়াত করতে পারবেন। ফলে বিভিন্ন বিমানবন্দরে ভিসা চেকিংয়ের জন্য দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়াতে হবে না। এতে খুব কম সময়ে শেষ হবে ইমিগ্রেশনও। এতে স্বস্তি ফিরে এসেছে জনমনে।বিশ্বের উন্নত দেশগুলো ২০০৮ সালে ই-পাসপোর্ট চালু করলেও দেশে ২০১৬ সালে এটি চালুর সিদ্ধান্ক নেওয়া হয়। কিন্তু, বাংলাদেশে ২০২০ সালের ২২ জানুয়ারী ই-পাসপোর্ট চালুর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে সরকার। পরিকল্পনা অনুযায়ী বছরের শুরুতে ঢাকায় ই-পাসপোর্ট সেবা চালুর মাধ্যমে দেশ ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই কর্মসূচীর উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) পাসপোর্টেও বইয়ে প্রথম যে তথ্য সংবলিত দুইটি পাতা থাকে, ই-পাসপোর্টে তা নেই। ই-পাসপোর্টে পালিমানের তৈরি একটি কার্ড ও অ্যান্টেনা রয়েছে। সেই কার্ডের ভেতরে চিপ রয়েছে, যেখানে পাসপোর্ট বাহকের সব তথ্য সংরক্ষিত রয়েছে।ডাটাবেজে রয়েছে, পাসপোর্টধারীর তিন ধরণের ছবি, ১০ আঙ্গুলের ছাপ ও চোখের আইরিশ। ফলে ই-পাসপোর্ট এ যেকোনো দেশের কর্তৃপক্ষ সহজেই ভ্রমণকারীর সম্পর্কে সব তথ্য জানতে পারবেন। এটি অত্যন্ত নিরাপত্তা সংবলিত একটি ব্যবস্থা। যে কারণে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশ এখন ই-পাসপোর্ট ব্যবহার শুরু করেছে।

চেকবই যেভাবে স্বাক্ষর যাচাই বাছাই করে ব্যাংক কর্মকর্তারা অনুমোদন করে টাকা প্রদান করেন। কিন্তু, এটিএম কার্ড দিয়ে যে কেউ নিজে থেকেই টাকা তুলতে পারেন।তেমনি এমআরপি পাসপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা তথ্য যাচাই বাছাই করে পাসপোর্টে সিল দিয়ে থাকেন। কিন্তু ই-পাসপোর্টধারী যন্ত্রের মাধ্যমে নিজে থেকেই ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করতে পারেন।

ই-পাসপোর্ট অত্যন্ত নিরাপত্তা সম্বলিত একটি ব্যবস্থা। যে কারনে বিশ্বের বেশির ভাগ দেশ এখন ই-পাসপোর্ট ব্যবহার শুরু করেছে। বিশ্বের ১১৯টি দেশের মতো আমরাও ১২০ নম্বরে যুক্ত হলাম।