সংবাদ শিরোনাম

ইরানের পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় যা বললেন বাইডেন | শেখ হাসিনার প্রশংসায় কমনওয়েলথ মহাসচিব | সারাদেশে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ২০ | ঠাকুরগাঁওয়ে পরিত্যক্ত ঘরে আগুন লাগিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর অভিযোগ! | অসহায় মানুষের আশ্রয়স্থল নগরকান্দা ব্লাড ডোনার্স ক্লাব | কৃষি বিক্ষোভে ট্রুডোর সমর্থন, কানাডার রাষ্ট্রদূত তলব করে ভারতের প্রতিবাদ | প্রতি শুক্রবার উইঘুর মুসলিমদের শূকর খেতে বাধ্য করে চীন | ছাত্রকে বলাৎকার, মাদ্রাসা শিক্ষককে গণধোলাইয়ের পর পুলিশে দিলেন জনতা | মধ্যরাত থেকে করোনা নেগেটিভ সনদ ছাড়া দেশে প্রবেশ নিষেধ | বিদায় নেয়ার আগে ইরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা ট্রাম্প প্রশাসনের |

  • আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জেরুজালেমকে রাজধানী করে সার্বভৌম ফিলিস্তিন চান সৌদি প্রিন্স

⏱ ৩:৩৩ পূর্বাহ্ন | শনিবার, আগস্ট ২২, ২০২০ 📂 আন্তর্জাতিক
Turki al-Faisal AFP

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সৌদি রাজপুত্র তুর্কি আল ফয়সাল বলেছেন, ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে হলে সবার আগে জেরুজালেমকে রাজধানী করে একটি সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গড়ে তুলতে হবে। শুক্রবার (২১ আগস্ট) সৌদি সংবাদপত্র আশরাক আল-আওসাত’-এ লেখা এক নিবন্ধে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি লেখেন, ‘যেসব আরব রাষ্ট্র সংযুক্ত আরব আমিরাতকে অনুসরণের কথা বিবেচনা করছে তাদের ইসরায়েলের কাছ থেকে পাল্টা মূল্য দাবি করা উচিত আর তা হওয়া উচিত চড়ামূল্য।’

তুর্কি আল ফয়সাল লেখেন, ‘ইসরায়েল ও আরব দেশগুলোর মধ্যে চূড়ান্ত শান্তি প্রতিষ্ঠার একটি মূল্য নির্ধারণ করেছে সৌদি আরব। আর তা হলো প্রয়াত বাদশাহ আবদুল্লাহর উদ্যোগ অনুসরণ করে জেরুজালেমকে রাজধানী করে সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা।’ ২০০২ সালে আরব লীগের মাধ্যমে ওই পরিকল্পনা ঘোষণা করা হয়। এতে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার বিনিময়ে ১৯৬৭ সালের মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধের পর দখল করা পশ্চিম তীর, গাজা ও পূর্ব জেরুজালেমের সব এলাকা থেকে ইসরায়েলি দখল অপসারণ এবং সেখানে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব দেওয়া হয়। তবে ইসরায়েল এই প্রস্তাব বাস্তবায়নের পক্ষে কোনও উদ্যোগই নেয়নি।

তারপরও ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করা নিয়ে আমিরাতের সিদ্ধান্ত নিয়ে বোঝাপড়ার পক্ষে কথা বলেন সৌদি রাজপুত্র তুর্কি আল ফয়সাল। তিনি মনে করেন, এই চুক্তির মধ্য দিয়ে রিয়াদের ঘনিষ্ঠ মিত্র আমিরাত অন্তত একটি মূল শর্ত নিশ্চিত করতে পেরেছে- আর তা হলো এর মাধ্যমে দখল সম্প্রসারণ পরিকল্পনা স্থগিত করেছে ইসরায়েল।

উল্লেখ্য প্রথম উপসাগরীয় এবং তৃতীয় আরব দেশ হিসেবে গত ১৩ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তিতে পৌঁছানোর ঘোষণা দেয় সংযুক্ত আরব আমিরাত। ওই চুক্তিতে সৌদি আরবও যোগ দেবে বলে গত বুধবার (১৯ আগস্ট) আশা প্রকাশ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তবে ওই চুক্তির পরও আমিরাতকে নিরাপত্তার স্বার্থে বিশ্বাস না করার কথা জানায় ইসরাইল। মার্কিন যুদ্ধ বিমান এফ-৩৫ কেনার জন্য আরব-আমিরাত উদ্যোগ নিলে ইসরাইল সেখানে ভেটো দেয়।

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, আমিরাত এফ-৩৫ যুদ্ধ বিমান কিনলে ইসরাইল নিরাপত্তাহীনতায় পড়বে। একই সঙ্গে তিনি যুক্তরাষ্ট্রকে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

তবে আমিরাত-ইসরাইল চুক্তি নিয়ে বেশ কয়েকদিন নীরব ছিল সৌদি আরব। বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আগে ইসরায়েলের কোনও চুক্তিতে যাবে না সৌদি আরব। আর শুক্রবার (২১ আগস্ট) আল ফয়সালের নিবন্ধ আরও স্পষ্ট হলো সৌদির অবস্থান।