সিনহা হত্যা: এপিবিএন’র তিন সদস্যের ৭ দিনের রিমান্ড শুরু

২:৫৪ অপরাহ্ণ | শনিবার, আগস্ট ২২, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, কক্সবাজার- অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় কারাগারে থাকা আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) তিন সদস্যকে সাত দিনের রিমান্ডের জন্য র‌্যাব হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে সিনহার বোনের দায়ের করা মামলায় মোট ১৩ জনকে রিমান্ডে নেওয়া হলো।

যাদের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে চার পুলিশ সদস্যসহ সাতজনকে রিমান্ড শেষে আদালতে সোপর্দ করা হলেও ওসি প্রদীপ, লিয়াকত, নন্দদুলালের রিমান্ডের পঞ্চম দিন চলছে।

আজ শনিবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটের দিকে এপিবিএনের তিন সদস্যকে কারাগার থেকে র‌্যাবের একটি দল হেফাজতে নেন। এরপর তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ওখানে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে নেওয়া হয় র‌্যাব ১৫ এর কক্সবাজার সদর দপ্তরে।

রিমান্ডে নেওয়া তিনজন হলেন- এপিবিএনের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শাহজাহান, কনস্টেবল রাজীব ও আব্দুল্লাহ।

র‍্যাব জানায়, হত্যার ঘটনায় যারা সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলো তাদের সঙ্গে গ্রেপ্তার এপিবিএনের এই তিন সদস্যদের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। সিনহার হত্যার ঘটনার দিন ৩১ জুলাই এই তিনজনই এপিবিএনের চেকপোস্টে দায়িত্ব পালন করেছেন।

কক্সবাজার জেলা কারাগারের জেল সুপার মোঃ মোকাম্মেল হোসেন জানান, কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর একটি দল এপিবিএনের তিন সদস্যকে জিজ্ঞাবাসাদের জন্য তাদের হেফাজতে নিয়েছে। আদালতের আদেশে এই তিন সদস্যকে র‌্যাব নিয়ে যায়।

এর আগে, গত ১৮ আগস্ট গ্রেপ্তারের পর এপিবিএনের এই তিন সদস্যের ৭ দিনের রিমান্ড আদেশ দেন আদালত।

এর আগে, শুক্রবার (২১ আগস্ট) সিনহা হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তাসহ র‌্যাব এর পদস্থ কর্মকর্তারা প্রধান তিন আসামি বরখাস্ত পরিদর্শক লিয়াকত, ওস প্রদীপ কুমার দাশ ও নন্দদুলালকে নেয়া হয় হত্যার ঘটনাস্থল শামলাপুর চেকপোস্টে। সেখানে করা হয় ছোটখাট একটি ড্রিল। বোঝার চেষ্টা করা হয় কি ঘটেছিলো ৩১ জুলাই রাতে। সেখানে আসামিরা জানান, সেদিন কোন অবস্থানে ছিলেন। কিভাবে গাড়ি থেকে বের হন সিনহা। সঙ্গে গুলির ঘটনাও বিস্তারিত বর্ননা করেন তারা। ড্রিল শেষে তিনজনকেই নেয়া হয় ক্যাম্পে। অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ হত্যা মামলায় তিনজনই সোমবার থেকে র‌্যাব এর রিমান্ডে রয়েছেন।

র‌্যাব জানায়, সব মুহুর্ত তদন্ত সংস্থার জন্য গুরুত্বপূর্ণ তাই প্রত্যেকটা সেকেন্ডকে বিশ্লেষণ করতে হবে।