পাকিস্তানকে অত্যাধুনিক যুদ্ধজাহাজ দিল চীন

⏱ ৯:২৬ অপরাহ্ন | রবিবার, আগস্ট ২৩, ২০২০ 📂 আন্তর্জাতিক
pak

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ পাকিস্তানের জন্য তৈরি চারটি অত্যাধুনিক যুদ্ধজাহাজের প্রথমটি বুঝিয়ে দিয়েছে চীন। রোববার পাকিস্তান নৌবাহিনীর মুখপাত্র অ্যাডমিরাল আরশিদ জাভেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এক টুইট বার্তায় তিনি জানিয়েছেন, চীনের সাংগাই শহরের হুডং জংগুয়া শিপিয়ার্ডে অত্যাধুনিক রণতরীটির ০৫৪ লঞ্চিং অনুষ্ঠান হয়। এতে পাকিস্তান নৌবাহিনীর প্রধান আজফার হুমায়ুন যোগদান করেন। এ সময় চীনা শিপবিল্ডিং কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান লি হংতাও ছাড়াও দেশটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

এই রণতরীতে সর্বশেষ অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র সংযোজন করা হয়েছে। এর মধ্যে বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র যুক্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি এটি থেকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে ভূমিতেও আক্রমণ করা যাবে।

এতে অত্যাধুনিক সেন্সর ও যুদ্ধ ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি সংযুক্ত রয়েছে। করোনার মধ্যেও রণতরীটি সম্পূর্ণ করা পাকিস্তানি নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে টুইট বার্তায় চীনা শিপইয়ার্ডকে ধন্যবাদ জানানো হয়। পাশাপাশি শান্তি ও স্থিতিশীলতায় এটি ভূমিকা রাখবে বলেও টুইট বার্তায় বলা হয়।

উল্লেখ্য সর্বপ্রথম ২০১৭ সালে দুটি যুদ্ধজাহাজের জন্য চীনা কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করে পাকিস্তান। পরবর্তীতে ২০১৮ সালে আরও যুদ্ধজাহাজের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয় দেশটি।

এর আগে চিরবৈরী ভারতের সঙ্গে শক্তি সমন্বয় করতে ২০১৬ সালে চীনা কোম্পানির সঙ্গে ৮টি ডিজেল চালিত সাবমেরিন ক্রয়ে ৫ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি করে। ২০২৮ সালে এগুলো হস্তান্তর করার কথা রয়েছে।

এদিকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের উন্নয়ন, কাশ্মীর ইস্যু ও সহযোগিতা বৃদ্ধি করতে সম্মত হয়েছে পাকিস্তান ও চীন। শুক্রবার চীনের হাইনান প্রদেশে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইর সঙ্গে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশির বৈঠকে দুই দেশের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

এ সময় দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে একসাথে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা। এছাড়া চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব অনুযায়ী কাশ্মীর সমস্যার সমাধানের পক্ষে কথা বলেন। অলোচনায় আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠার বিষয়টিও বৈঠকে প্রাধান্য পায়।