• আজ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
  • f

বেনাপোল বন্দরে রফতানিমুখী পণ্যবাহী ট্রাকে প্রকাশ্যে 'চাঁদাবাজি'

⏱ ৩:২৮ অপরাহ্ন | সোমবার, আগস্ট ২৪, ২০২০ 📂 খুলনা, দেশের খবর

মহসিন মিলন, বেনাপোল প্রতিনিধি- বেনাপোল বন্দর এলাকায় সরকারের নির্দেশ উপেক্ষা করে রফতানি পণ্যবোঝাই ট্রাক থেকে ঝিকরগাছা ট্রাক মটর শ্রমিক ইউনিয়নসহ বেশ কয়েকটি সংগঠনের নামে প্রকাশ্যে চাঁদা আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। যার লাগাম টেনে ধরা সম্ভব না হওয়ায় সরকারের উচ্চ পর্যায়ে অভিযোগ দিয়েছেন ঝিকরগাছ, শার্শা ও বেনাপোল বন্দর ট্রাক মালিক সমিতি।

যশোর জেলা (ঝিকরগাছ, শার্শা ও বেনাপোল বন্দর) ট্রাক ও ট্যাংকলরী (দাহ্য পদার্থ বহনকারী ব্যতীত) ট্রাক্টর ও কভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদ স্বাক্ষরিত অভিযোগ পত্রে জানা যায়, বাংলাদেশের সর্ব বৃহৎ স্থল বন্দর বেনাপোল। সরকার এ বন্দর থেকে বছরে সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় করে থাকে।

বন্দরকে সর্বক্ষণ সচল রাখার জন্য বাংলাদেশ সরকারসহ স্থানীয় কয়েকটি সংগঠন সার্বক্ষণিক চেষ্টা করে যাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশ হতে ভারতে পণ্য রফতানি করার সময় পণ্যবাহী ট্রাক থেকে বেনাপোল চেকপোস্টে কিছু কথিত শ্রমিক নামধারী চাদাবাজরা ট্রাক প্রতি ১৬০/২০০ টাকা করে প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি করছে।

এমনকি পণ্যবাহী ট্রাকের সিরিয়াল আগে পাইয়ে দিতে ট্রাক প্রতি ১৫০০/২০০০ টাকা আদায় করছে, যা আইনগত অপরাধযোগ্য। সরকার যখন পরিবহন থেকে চাঁদাবাজি আদায় বন্ধ করতে নির্দেশনা দিলেও বেনাপোল চেকপোস্টে পণ্যবাহী ট্রাক হতে নির্বিঘ্নে চাঁদা আদায় সরকারের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে। চাদাবাজি বন্ধ না হলে যে কোন সময় বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন ট্রাক মালিক সমিতি।

বেনাপোল বন্দরের আমদানি-রফতানি গেট এলাকায় গিয়ে জানা যায়, যশোর জেলা (ঝিকরগাছা, শার্শা ও বেনাপোল বন্দর) ট্রাক ট্যাংকলরী ট্রাক্টর ও কাভার্ডভ্যান মটর শ্রমিক ইউনিয়ন কর্তৃক প্রত্যেক রপ্তানী পণ্যবাহী ট্রাক থেকে ১’শ টাকা করে চাঁদা আদায় করছে। সে সাথে ভারতের পেট্রাপোল কাস্টমসের নাম করেও চাঁদা নেয়া হচ্ছে ৫০ টাকা। আরো কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ করেন রপ্তানীমুখী ট্রাক ড্রাইভাররা।

ইস্রাফিল হোসেন নামে এক ট্রাক ড্রাইভার এ জানান, সরকার ট্রাক থেকে চাঁদা নিতে নিষেধ করলেও বেনাপোলের কয়েকটি সিন্ডিকেট রপ্তানীপণ্যবাহী ট্রাক থেকে চাঁদা আদায়ে করছে জোর করে। তারা কিছুতেই চাঁদা না নিয়ে ভারতে ট্রাক প্রবেশ করতে দেয় না।

তিনি আরো বলেন, ঝিকরগাছা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের নামে কতিপয় ব্যক্তি রপ্তানী ট্রাক থেকে ১০০ টাকা ও ভারতের পেট্রাপোল কাস্টমসের জন্য ৫০ টাকা চাঁদাসহ ১৫০ টাকা হারে আদায় করছে।

যশোর জেলা (ঝিকরগাছা, শার্শা ও বেনাপোল বন্দর) ট্রাক ট্যাংকলরী(দাহ্য পদার্থ ব্যতীত) ট্রাক্টর ও কাভার্ডভ্যান মটর শ্রমিক ইউনিয়নের বেনাপোল শাখার সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন বিষয়টির সত্যতা প্রকাশ করে বলেন, প্রতিদিন এ রপ্তানী গেট দিয়ে ২০০ ট্রাক পণ্য ভারতে যাতায়াত করে থাকে। সেখানে বিশাল এ সংগঠনের বেকার সদস্যদের স্বার্থে গত বৃহস্পতিবার থেকে তারা ট্রাক প্রতি ১০০ করে নিচ্ছেন।

বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মামুন খান বলেন, বিষয়টি তিনি শুনেছেন এবং আইনানানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রপ্তানীমুখী ট্রাক ড্রাইভারদের কাছে চাঁদার সত্যতা যাচাই করেছেন। কিন্তু কোনও ড্রাইভার মুখ খুলতে রাজি না হওয়ায় চাঁদাবাজদেও বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে বিলম্ব হচ্ছে।

শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পূলক কুমার মন্ডল বলেন, বিষয়টি যাচাই করে সত্যতা পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।