সংবাদ শিরোনাম

‘ভারতে যারাই ক্ষমতায় এসেছে, তারাই মুসলমানদেরকে শিক্ষা থেকে দূরে রেখেছে’দাপুটে জয়ে সিরিজ শুরু বাংলাদেশেরসাজার বদলে আদালত থেকে দেয়া হলো বই, ১০ শর্তে মুক্তি পেলো ৪৯ শিশুকুয়াকাটায় সৈকতে ডিগবাজি দিতে গিয়ে পর্যটকের মৃত্যুঠাকুরগাঁওয়ে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ডশাহজাদপুরে বসতবাড়িতে চোরাই তেলের অবৈধ গোডাউনে ভয়াবহ আগুন, ৩ জন দগ্ধটাঙ্গাইলে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে যুবক গ্রেফতারযুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ পরশ করোনা আক্রান্তযশোরের শার্শায় অবৈধ ক্লিনিক সিলগালা, ১ লাখ টাকা জরিমানাসাড়ে ৮ মাসের মধ্যে দেশে করোনায় সর্বনিম্ন মৃত্যু

  • আজ ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সিরাজুল ইসলাম হাসপাতালকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা

◷ ৮:২৮ অপরাহ্ন ৷ মঙ্গলবার, আগস্ট ২৫, ২০২০ ঢাকা
rabb

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকাঃ রাজধানীর মালিবাগে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালায় র‍্যাব ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যৌথ দল। র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২টায় শুরু হয় এই অভিযান।

অভিযানে মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট, সার্জিক্যাল সামগ্রী রাখাসহ নানা অনিয়ম পেয়েছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

অভিযান শেষে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের যুগ্ম সচিব ও টাস্কফোর্সের সদস্য উম্মে সালমা তানজিয়া সাংবাদিকদের বলেন, কোভিড আক্রান্ত রোগীদের যে প্রটোকল মানা উচিত, এই প্রতিষ্ঠানে অভিযানে এসে তারা দেখেছেন কোভিডের প্রটোকল মানা হচ্ছে না। এছাড়া মাইক্রোবায়োলজি ল্যাব এবং করোনা ইউনিট একই জায়গায় স্থাপনা করা হয়েছে। এটা টাস্কফোর্সের নিয়মিত অভিযান উল্লেখ করে এই কর্মকর্তা বলেন, রোগীদের গুণগত যে সেবা দেয়া দরকার, তা তারা দিতে পারছে না।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম বলেন, হাসপাতালটির ল্যাব থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ রিএজেন্ট এবং চারটি অপারেশন থিয়েটার থেকে বিপুল পরিমাণ সার্জিক্যাল সামগ্রী তারা উদ্ধার করেছেন। যেগুলো আজ থেকে কয়েক বছর আগে মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে। তারা এসব জব্দ করেছেন।

সারোয়ার আলম বলেন, মাইক্রোবায়োলজি ল্যাবে মাইক্রোবায়োলজি স্যাম্পলগুলো ৪৮ ঘণ্টা থেকে ৭২ ঘণ্টা রাখার কথা। কিন্তু আট থেকে ১০ ঘণ্টা রেখে ফলাফল দিয়ে দেয়া হচ্ছে। কিন্তু ফলাফল ৪৮ ঘণ্টার কথা উল্লেখ করা থাকে। এযাবৎকালে এই প্রতিষ্ঠানে যতগুলো মাইক্রোবায়োলজি রিপোর্ট তৈরি হয়েছে সবই ভুয়া রিপোর্ট বলেও দাবি করেন র্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট।