সংবাদ শিরোনাম

ঘাটাইলে নিখোঁজের তিনদিন পর ঘোড়াগাড়ি চালকের লাশ উদ্ধারদেশে ফের বাড়ল করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তজন্মনিবন্ধন নিতে এসে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে ধর্ষণের শিকার তরুণী‘হেরে গেলাম তোমার মিথ্যা ভালোবাসার কাছে’ চিরকুট লিখে নার্সের আত্মহত্যাইতালিতে রাজনৈতিক সঙ্কট: আস্থাভোটে বিজয়ী জুসেপ্পে কন্তে, রাতে ভাগ্য নির্ধারণটাঙ্গাইলে জিয়াউর রহমানের ৮৫তম জন্মদিন পালিতমানিকগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলারাস্তায় ঘুরে ঘুরে পোস্টার থেকে ‘আল্লাহ’র নাম সংগ্রহ করেন হোসনে আরাআজকে শপথ গ্রহণ করছি, তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনবো: মির্জা ফখরুলজিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী আজ

  • আজ ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

চীন সীমান্তে বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করল ভারত

◷ ১০:৩৮ অপরাহ্ন ৷ মঙ্গলবার, আগস্ট ২৫, ২০২০ আন্তর্জাতিক
chaina

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ একের পর এক বৈঠকের পরেও চীন-ভারত দ্বন্দ্বের মীমাংসা হচ্ছে না। এরই মধ্যে চীনা সীমান্তের খুব কাছে বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রসহ বিপুল পরিমাণ সেনা মোতায়েন করেছে ভারত। পূর্ব লাদাখে চীনা হেলিকপ্টারগুলোর অহরহ বিচরণ বন্ধে এসব ক্ষেপণাস্ত্রসহ সেনা জড়ো করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা গেছে, চীন সীমান্তে মোতায়েন করা হয়েছে ভারতীয় বাহিনী, যাদের কাছে রয়েছে রাশিয়ার শক্তিশালী ইগলা এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম। যা ভারতের আকাশসীমায় শত্রুদের অনুপ্রবেশকে আটকাতে সক্ষম।

সংবাদ সংস্থা এএনআইর সূত্রের বরাত দিয়ে জানানো হয়, সীমান্তের গুরুত্বপূর্ণ উচ্চতায় রাশিয়ার তৈরি বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রগুলো নিয়ে বাহিনীর সদস্যরা মোতায়েন রয়েছে। যে কোনো বিমান ভারতীয় আকাশসীমা লঙ্ঘন করলে তার জবাব দেবে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, চীন ও পাকিস্তানের সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত ভারতীয় বাহিনী। সামরিক শক্তি বাড়াতে রাশিয়ার কাছ থেকে ‘৯কে৩৮ ইগলা’ মিসাইলের দ্রুত আমদানি করেছে ভারত। এর মাধ্যমে ভারতীয় আকাশ সীমায় ঢুকলে চীনা ও পাকিস্তানি যুদ্ধবিমানকে সহজেই ধরাশায়ী করতে পারবে বলে ভারতীয় সেনা জানিয়েছে।

রাশিয়ান প্রযুক্তিতে তৈরি ‘ইগলা এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম’ দিয়ে ভারতীয় বাহিনীকে সজ্জিত করা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ লাইন-অব-অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল এলাকায় কাঁধে রাখার এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম দিয়েই চীনকে এভাবেই কোণঠাসা করার পরিকল্পনা করেছে ভারত।

যে কোনো রকম উসকানিমূলক কাজ এবং আকাশসীমা লঙ্ঘনকে আটকাতে সক্ষম এই অস্ত্র। ভারতের মাটিতে ঢুকলেই হামলা চালাতে সক্ষম এই এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম। চীনকে মুখের ওপর জবাব দিতে সীমান্তে ভারত সাজিয়েছে সুখোই ৩০ এমকেআই, মিগ ২৯ ও মিরাজ ২০০০।

উল্লেখ্য প্রায় তিন মাস ধরে ভারত-চীনের মধ্যে উত্তেজনা চলছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঘাঁটি গেড়েছে চীন। বার বার তাদের সঙ্গে আলোচনা করেও এ বিষয়ে এখনও কোনো সমাধানে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি।

গালওয়ান, হটস্প্রিং, ফিঙ্গার পয়েন্ট ফোর থেকে সেনা সরালেও ভারতীয় ভূখণ্ডের প্যাংগং, দেপসাঙে এখনও ঘাঁটি গেড়ে বসে আছে চীনা সেনারা।