কৃষি থেকে শিল্পের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি আমরা: রেলমন্ত্রী

৪:১৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২৭, ২০২০ দেশের খবর, রংপুর

নাজমুস সাকিব মুন, পঞ্চগড় প্রতিনিধি- “বঙ্গবন্ধুর একটি দর্শন ছিল আত্মনির্ভরশীল হওয়া। সেই লক্ষ্যে সরকার দেশে কৃষি অর্থনীতির পাশাপাশি শিল্প অর্থনীতিকে এগিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। এখন আমরা কৃষি থেকে শিল্পের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। যার ফলশ্রুতিতে দেবীগঞ্জসহ সারাদেশে ২০৩০ সালের মধ্যে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হবে।”

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে সদ্য চুক্তি সম্পাদিত অর্থনৈতিক অঞ্চল পরিদর্শন শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন এই কথা বলেন।

রেলপথ মন্ত্রী আরো বলেন, “বঙ্গবন্ধুর একটি রাজনৈতিক আদর্শ ছিল; গরীব, দুঃখি, মেহনতী সাধারণ মানুষ তাদের যেন অবস্থার পরিবর্তন করা যায়, তারা যেন অভূক্ত না থাকে, তাদের যেন বাড়ি ঘর থাকে, তাদের সন্তানরা যেন লেখা পড়ার সুযোগ পায়, তাদের খাদ্যাভাব যেন না হয়, তারা যেন চিকিৎসার সুযোগ পায়। দেশ স্বাধীনের ৩ বছর পরই বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়। কিন্তু আজকে তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সেই নীতি ধরে সমস্ত রাষ্ট্রে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।”

অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলতে জমি অধিগ্রহণের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, “অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলতে খাস জমির বাইরে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি অধিগ্রহণ করা হবে। সেই সব জমির বর্তমান মূল্যের তুলনায় ৩ গুণ মূল্য দেয়া হবে। আগে জমির মূল্য পরিশোধ করা হবে তারপর জমি হস্তানন্তর করা হবে। এছাড়া যাদের বসত ভিটা অধিগ্রহণ করা হবে তাদের পুনর্বাসন করা হবে। সরকার এই নীতিতেই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। যাতে গরীবের কোন ক্ষতি না হয়।”

মন্ত্রী অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য নির্ধারিত এলাকা পরিদর্শন শেষে উপজেলা হল রুমে মতবিনিময় সভায় অংশ নেন।

উল্লেখ্য, সোমবার (২৪ আগস্ট) পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের হল রুমে অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের জন্য খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদানের লক্ষ্যে চুক্তিপত্র স্বাক্ষরিত হয়েছে। সরকারের পক্ষে জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন ও বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) পক্ষে সহকারী ব্যবস্থাপক একেএম আনোয়ার চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করেন।