সংবাদ শিরোনাম

ইরানের পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় যা বললেন বাইডেন | শেখ হাসিনার প্রশংসায় কমনওয়েলথ মহাসচিব | সারাদেশে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ২০ | ঠাকুরগাঁওয়ে পরিত্যক্ত ঘরে আগুন লাগিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর অভিযোগ! | অসহায় মানুষের আশ্রয়স্থল নগরকান্দা ব্লাড ডোনার্স ক্লাব | কৃষি বিক্ষোভে ট্রুডোর সমর্থন, কানাডার রাষ্ট্রদূত তলব করে ভারতের প্রতিবাদ | প্রতি শুক্রবার উইঘুর মুসলিমদের শূকর খেতে বাধ্য করে চীন | ছাত্রকে বলাৎকার, মাদ্রাসা শিক্ষককে গণধোলাইয়ের পর পুলিশে দিলেন জনতা | মধ্যরাত থেকে করোনা নেগেটিভ সনদ ছাড়া দেশে প্রবেশ নিষেধ | বিদায় নেয়ার আগে ইরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা ট্রাম্প প্রশাসনের |

  • আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নওগাঁয় প্রতিবন্ধী হোটেল শ্রমিককে শ্বাসরোধে হত্যা

⏱ ৪:৫৫ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২৭, ২০২০ 📂 দেশের খবর, রাজশাহী

নাজমুল হক নাহিদ, নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর পার্শ্ববর্তি বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার শহরের মালগুদাম এলাকায় শিমুল হোসেন (৩২) নামের এক শারীরিক প্রতিবন্ধী হোটেল শ্রমিককে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার (২৬ আগস্ট) রাতের কোন এক সময় এ ঘটনা ঘটে।

শিমুল হোসেন সান্তাহার পৌর শহরের ইয়ার্ড কলোনী মাস্টারপাড়া এলাকার শাহাজাহান আলীর ছেলে। তিনি সান্তাহার ষ্টেশন রোডে অবস্থিত বিসমিল্লাহ হোটেলের কর্মচারী ছিলেন। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ তিন হোটেল কর্মচারীসহ চারজনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সান্তাহার শহরের মালগুদাম এলাকায় বিসমিল্লাহ হোটেলের মিস্টি ও দই তৈরীর একটি কারখানা রয়েছে। সেখানে শিমূল রাতে ছিলেন। রাতের কোন এক সময় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে পাশের দোকানের দেলোয়ার হোসেন নামের একজন শিমূলকে ডাকতে গেলে তার কোন সাড়া না পাওয়ায় দরজার ফাঁক দিয়ে শিমুলের দেহ মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে। পরে আশপাশের লোকজনকে ডেকে ঘরে ঢুকে শিমুলের মৃতদেহ দেখতে পায়। এ সময় শিমুলের মুখ বালিশ ও কাঁথা দিয়ে জড়ানো ছিল।

লাশের সুরুতহালের দায়িত্বে থাকা সান্তাহার টাউন পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক আব্দুল ওয়াদুদ জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শিমুলকে বালিশ ও কাথাঁ দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

বিসমিল্লাহ হোটেলের মালিক এমরান হোসেন বলেন, শিমুল শারীরিক প্রতিবন্ধী এবং অত্যন্ত নিরীহ ও শান্ত প্রকৃতির মানুষ ছিলেন। সে তার বেতনের টাকা কাছে রাখতেন এবং তার কাছে একটি দামি মুঠোফোন ছিল। টাকা ও মুঠোফোনের কারণে কেউ তাকে হত্যা করতে পারে।

আদমদীঘি থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুর রাজ্জাক বলেন, এ ঘটনায় শিমুলের বাবা শাহাজাহান আলী বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। লাশ ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।