সংবাদ শিরোনাম
রাজশাহীতে রোপা আমনের বাম্পার ফলনে আশাবাদী কৃষক ও কৃষি দপ্তর | এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণের ঘটনায় আসামি মাহফুজুর রহমান গ্রেফতার | গাজীপুরে পিবিআইয়ের অভিযানে অপহরণকারী চক্রের  ২সদস্য গ্রেফতার | সিলেট এবং খাগড়াছড়িতে ধর্ষণের প্রতিবাদে গাজীপুরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ | শিল্পপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে ভূমিমন্ত্রীর শোক | বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড দলকে অভিনন্দন জানালেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী | ‘শেখ হাসিনার জন্যই গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা পেয়েছে’- মেয়র তাপস | ‘নভেম্বরে আসতে পারে করোনার ভ্যাকসিন’- স্বাস্থ্যমন্ত্রী | শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির বাতিঘর ও কাণ্ডারি: শিক্ষামন্ত্রী | শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা ও এইচএসসি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন শিক্ষামন্ত্রী |
  • আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কোটালীপাড়ায় নৌকা বিক্রির ধুম

১১:০৪ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২৭, ২০২০ ঢাকা
noua

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় বন্যা ও বর্ষণের ফলে দিন দিন বাড়ছে পানি। এ কারণে উপজেলার কলাবাড়িসহ কয়েকটি ইউনিয়নের নিন্মাঞ্চল পানিতে ডুবে গেছে।

যার ফলে সাধারণ জনগনের নৌকা দিয়েই যাতায়েত করতে হচ্ছে। দিন দিন বাড়ছে নৌকার কদর। আর এ কারণে উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে নৌকা বিক্রির ধুম পড়েছে।

এ উপজেলার ঘাঘর, কালিগঞ্জ, রামনগর, ধারাবাশাইল, শুয়াগ্রাম, ভাঙ্গারহাট, পিড়ারবাড়িসহ প্রায় ১০/১৫টি ছোট বড় হাটে নৌকা বিক্রি হয়। ছোট বড় মাঝারি নৌকার প্রকারভেদে দাম কম বেশী হয়ে থাকে। প্রতিটি নৌকার দাম ৫হাজার থেকে ১৫হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

গত বছরের চেয়ে এ বছর নৌকার দাম বেশী বলে জানিয়েছেন কলাবাড়ি ইউনিয়নের হিজলবাড়ি গ্রামে কৃষক তিনু হাজরা। তিনি বলেন, কালিগঞ্জ বাজারে গত বছর যে নৌকাটি ৫হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে এ বছর সেই ধরণের একটি নৌকা ৭/৮হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

একই বাজারের নৌকা ব্যবসায়ী নীহার বাড়ৈ বলেন, এই বাজারে কড়াই কাঠের মাঝারি ধরণের বেশী বিক্রি হচ্ছে। গত বছরের চেয়ে এ বছর নৌকার চাহিদা ও দাম দুটোই একটু বেশী। তবে আমরা দাম বাড়াইনি। আমরা যেখান থেকে নৌকা ক্রয় করে আনি সেখানের কারিগররা এ বছর নৌকার দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন।

উপজেলার শুয়াগ্রামের নৌকার কারিগর হরবিলাস বাড়ৈ বলেন, এ বছর পানি বাড়ার কারণে নৌকার চাহিদা বেড়েছে। আর নৌকার চাহিদা বাড়লে দামও একটু বেড়ে যায়। তা ছাড়া গত বছরের চেয়ে এ বছর লোহা ও কাঠের দাম বেশী। এ জন্য এ বছর আমাদের একটু বেশী দামে নৌকা বিক্রি করতে হচ্ছে।

কলাবাড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা বলেন, প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে শুধু কৃষক ও মৎস্যজীবীরা নৌকা ক্রয় করে। কিন্তু এ বছরের চিত্রটা একটু ভিন্ন। এ বছর বন্যা ও বর্ষার কারণে পানি বেড়ে নিন্ম এলাকার রাস্তাঘাট ডুবে গেছে।

এ কারণে সাধারণ জনগদের হাট বাজার, অফিস আদালতে নৌকা নিয়ে যাতায়েত করতে হচ্ছে। যার ফলে গত বছরের চেয়ে এ বছর নৌকা ক্রয় বিক্রয় বেশী হচ্ছে। তাই গত বছরের তুলনায় এ বছর নৌকার দামও একটু বেশী।