সংবাদ শিরোনাম
ধর্ষণে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা সাইফুরের রুম থেকে অস্ত্র উদ্ধার | স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ভাঙা কুটিরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন আ.লীগ নেতা বাচ্চু | উইঘুর সংস্কৃতি বিলুপ্ত করতেই হাজার মসজিদ ধ্বংস করে চীন | যে কারণে এই মুহূর্তে সরকার পতনের আন্দোলন করবেন না নুর | টাঙ্গাইলে বন্যায় সড়ক বিভাগের ৬০ কিলোমিটার রাস্তার ক্ষয়ক্ষতি | এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গণধর্ষণ, ছাত্রলীগের যাদের খুঁজছে পুলিশ | মসজিদে নামাজ পড়তে আসলেই উপহার পাচ্ছে শিশুরা | স্কুলছাত্রী নীলা হত্যার প্রধান আসামি মিজান গ্রেফতার | করোনায় বিশ্বে ২০ লাখ মানুষের মৃত্যু হতে পারে: ডব্লিউএইচও | এমসি কলেজ হোস্টেলে স্বামীকে বেধে স্ত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে |
  • আজ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ইসরাইলের সাথে সম্পর্ক করবে না সুদান-বাহরাইন, হতাশ পম্পেও

১১:১৩ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, আগস্ট ২৮, ২০২০ আন্তর্জাতিক
Bahrain-US

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ইসরাইলের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করতে রাজি হয়নি বাহরাইন। দেশটিতে সফররত মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সংযুক্ত আরব আমিরাতের অনুসরণে ইসরাইলের সঙ্গে শান্তিচুক্তির আহ্বান জানালে বাহরাইনের বাদশাহ হাম্মাদ বিন ইসা আল খলিফা সরাসরি তা প্রত্যাখ্যান করেন।

গত বুধবার দুই নেতার বৈঠকের পর বাহরাইনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ছাড়া ইসরাইলের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করা কোনো অর্থ বহন করবে না।

এর আগে গত মঙ্গলবার সুদানের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী আবদুল্লাহ হামদাকও পম্পেওকে জানিয়ে দেন, ইসরাইলের সাথে শান্তি প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নেয়ার এখতিয়ার তার সরকারের নেই।

সুদান সরকারের মুখপাত্র ফয়সাল সালেহ এক বিবৃতিতে জানান, মঙ্গলবারের আলোচনায় হামদাক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন তার দেশের অন্তর্বর্তী সময়ের নেতৃত্ব দিচ্ছে একটি বিশাল জোট তাদের সুনির্দিষ্ট কর্মসূচি রয়েছে।

এই কর্মসূচি হলো, সরকার পরিবর্তন সম্পন্ন করা, দেশের শান্তি ও স্থিতিশীলতা অর্জন এবং অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠান। এর বাইরে কোনো বিষয়ের কিংবা ইসরাইলের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার সিদ্ধান্ত নেয়ার কোনো এখতিয়ার এই সরকারের নেই।

তবে মাইক পম্পেও বলেন, তিনি আশা করছেন অন্যান্য আরব দেশও সংযুক্ত আরব আমিরাতের অনুসরণ করে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করবে।

যদিও ৯০ এর দশক থেকে ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইনের সম্পর্ক রয়েছে এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানানো প্রথম উপসাগরীয় দেশ বাহরাইন।

তবে ইসরাইলের স্বীকৃতি ও সম্পর্ক পুনরুদ্ধারে সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই পদক্ষেপ আরব দেশগুলো ভালোভাবে গ্রহণ করেনি। বেশিরভাগ আরব দেশই এর বিরোধিতা করেছে।

সৌদি আরবের সঙ্গে বাহরাইনের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে এবং তাদের আশীর্বাদ ছাড়া বাহরাইন ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেবে না।

গত সপ্তাহে সৌদি আরব সংযুক্ত আরব আমিরাতের চুক্তি অনুসরণ না করার ঘোষণা দিয়ে বলেছিল যে জায়নবাদী রাষ্ট্র ফিলিস্তিনের সঙ্গে আন্তর্জাতিক শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর না করা হলে তারা ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করবে না।