সংবাদ শিরোনাম
শিল্পপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে ভূমিমন্ত্রীর শোক | বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড দলকে অভিনন্দন জানালেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী | ‘শেখ হাসিনার জন্যই গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা পেয়েছে’- মেয়র তাপস | ‘নভেম্বরে আসতে পারে করোনার ভ্যাকসিন’- স্বাস্থ্যমন্ত্রী | শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির বাতিঘর ও কাণ্ডারি: শিক্ষামন্ত্রী | শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা ও এইচএসসি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন শিক্ষামন্ত্রী | দেশে ইতিহাস বিকৃতির জনক জিয়াউর রহমান: কাদের | শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এগিয়ে নেওয়ার অফুরন্ত প্রেরণা: কাদের | শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বাকৃবি ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল | নারীর দিকে আড়চোখে তাকাবে, এমন কর্মী ছাত্রলীগে নেই: লেখক |
  • আজ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দক্ষিণ চীন সাগরে ভারতের যুদ্ধজাহাজ, ক্ষুব্ধ বেইজিং

১০:২৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, আগস্ট ৩০, ২০২০ আন্তর্জাতিক
ind

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ একের পর এক বৈঠকের পরও লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় উত্তেজনা কমছে না। গত সপ্তাহেই ভারতের চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপান রাওয়াত বলেছিলেন, আলোচনার রাস্তা বন্ধ হলে সেনা সমাধানের পথ খোলা রাখছে ভারত। এরকম এক পরিস্থিতিতে দক্ষিণ চীন সাগরে রণতরী মোতায়েন ভারত। দিল্লির এমন পদক্ষেপে আপত্তি জানিয়েছে চীন।

২০০৭ সাল থেকে দক্ষিণ চীন সাগরে দ্রুত প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করছে চীন। দুনিয়া সবচেয়ে ব্যস্ত এই সমুদ্রপথে চীনের প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা নিয়ে আতঙ্কে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও। ইতিমধ্যেই এই অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় কৃত্তিম দ্বীপ তৈরি করেছে বেইজিং। একইসঙ্গে সেনার উপস্থিতিও বাড়াচ্ছে।

গালওয়ানে ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর চুপ করে বসে নেই ভারত। লাদাখ সীমান্তে দ্রুত শক্তি বৃদ্ধি করে চলেছে সেনা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ জুন গালওয়ানে ২০ সেনা নিহত হওয়ার পর দক্ষিণ চীন সাগরে একটি শক্তিশালী রণতরী মোতায়েন করেছে ভারত। ওই অঞ্চলে ভারতসহ অন্যান্য দেশের উপস্থিতি নিয়ে বরাবরই আপত্তি করে আসছে চীন।

ভারতীয় যুদ্ধজাহাজ দক্ষিণ চীন সাগরে মোতায়েন করায় চীনা নৌবাহিনী ও নিরাপত্তায় নিয়োজিতরা আপত্তি জানিয়েছে। তারা বলছে, দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক পর্যায়ে আলোচনা চলার মধ্যেই এমন যুদ্ধজাহাজের উপস্থিতি বিরোধপূর্ণ।

দক্ষিণ চীন সাগরে ইতিমধ্যেই আমেরিকার রণতরীর ও ডেস্ট্রয়ারের উপস্থিতি রয়েছে। ভারতীয় বাহিনী নিয়মিতভাবে আমেরিকার সমমানের যুদ্ধজাহাজগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

চীন কয়েক দশক ধরে দক্ষিণ চীন সাগরের একটি বিশাল অংশ দাবি করে আসছে। সেখানে তারা কয়েকটি বিরোধীয় দ্বীপে সামরিকঘাঁটি নির্মাণ করে আসছে। এদিকে ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন, মালয়েশিয়া, তাইওয়ান ও ইন্দোনেশিয়া তাদের কাছাকাছি সামুদ্রিক অঞ্চল দাবি করে আসছে।