মানবিক বিভাগে এমএ পাশ করেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক!

⏱ ৫:১৯ অপরাহ্ন | সোমবার, আগস্ট ৩১, ২০২০ 📂 দেশের খবর, বরিশাল

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল প্রতিনিধি- চিকিৎসা শাস্ত্রের কোন প্রকার পেশাদারি ডিগ্রী অর্জন না করেই মানবিক বিভাগে এমএ (মাস্টার্স) পাশ করেই নিজেকে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দাবি করে নিয়মিত চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন অপু কুমার ওরফে নয়ন (৩০) নামের এক যুবক।

এমন অভিযোগে পটুয়াখালী র‌্যাব-৮ এর বিশেষ অভিযানে রবিবার (৩০ আগষ্ট) পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার আদাবড়িয়া ইউনিয়নের কাশিপুর বাজার এলাকা থেকে আটক করা হয় ওই যুবককে। অপু কুমার ওরেফে নয়ন উপজেলার আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের মহাশ্রাদ্বি গ্রামের অভিনাশ শীলের ছেলে।

আজ সোমবার (৩১ আগষ্ট) সকালে র‌্যাব-৮ পটুয়াখালীর ক্যাম্প ভারপ্রাপ্ত কোম্পানি কমান্ডার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. ইফতেখারুজ্জামান এর সাক্ষরিত ই-মেইলের মাধ্যমে প্রেরিত এক প্রেস রিলিজের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সুত্রে জানা যায়, গোপন সুত্রে অভিযোগ পেয়ে র‌্যাব-৮ এর সিপিসি-১ এর পটুয়াখালীর ক্যাম্প এর একটি অভিযানিক দল উপজেলার আদাবড়িয়া ইউনিয়নের কাশিপুর বাজার এলাকায়  অভিযান চালায়। এ সময় বাজারের একটি ঘর থেকে অপু কুমার ওরফে নয়নকে আটক করা হয়। আটকের সময় তার ব্যবহৃত ভিজিটিং কার্ড, চিকিৎসা ব্যবস্থাপত্রের প্যাড ও সার্জারী করার উপকরণ জব্দ করা হয়।

অভিযুক্ত অপু কুমারকে আটকের পর যাচাই বাচাইয়ের জন্য পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মো. মাজাহারুল ইসলাম জনির কাছে নিয়ে গেলে অপু কুমারকে তিনি ভুয়া চিকিৎসক হিসেবে চিহ্নিত করেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অপরাধ স্বীকার করলে অপু কুমারকে বাউফল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে এবং মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে সুত্রে জানা গেছে।

বাউফল থানার ওসি (তদন্ত) আল মামুন এ বিষয়ে সত্যতা স্বীকার করেছেন।