আজ থেকে আগের ভাড়ায় ফিরছে বাস, সব সিটে যাত্রী

১১:৪৮ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১, ২০২০ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ বিবেচনায় তিন মাস অর্ধেক সিটে যাত্রী পরিবহন করেছে গণপরিবহনগুলো। যাত্রীদের এই সময়ে গুনতে হয়েছে কাগজে-কলমে ৬০ শতাংশ, বাস্তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আগের তুলনায় দ্বিগুণ ভাড়া। করোনার সেই সংক্রমণের গতিতে কোনো পরিবর্তন না এলেও গণপরিবহনগুলো আজ মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) থেকে ফিরছে সাবেক ভাড়ায়। আর সব সিটে যাত্রী তোলারও অনুমতি দিয়েছে সরকার। একইসঙ্গে আজ থেকেই আনুষ্ঠানিকভাবে চলবে মোটরসাইকেলে রাইড শেয়ারিং সেবাগুলোও।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ জানান, সব পরিবহন সংগঠন এবং সারাদেশে তাদের পরিবহন নেতাদের চিঠি দিয়ে আগের ভাড়ায় ফিরে যেতে নির্দেশ দিয়েছেন। এই নির্দেশ যাতে মানা হয় সেজন্য তারা নজর রাখবেন। কেউ নির্দেশ না মানলে সমিতি থেকে বাদ দেওয়াসহ কঠোর অবস্থানের কথা জানান খন্দকার এনায়েত উল্লাহ।

গত শনিবার (২৯ আগস্ট) বিআরটিএ ও বিআরটিসি’র ঢাকা সড়ক জোনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের গণপরিবহনের সাবেক অবস্থায় ফিরে যাওয়ার অনুমতির কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সামগ্রিক পরিস্থিতি এবং জনস্বার্থ বিবেচনা করে সরকার আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে গণপরিবহনে আগের নির্ধারিত ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গণপরিবহনের যাত্রী, চালক, সুপারভাইজার, চালকের সহকারী, টিকিট বিক্রয়কারীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে। হাত ধোয়ার জন্য পর্যাপ্ত সাবান পানি অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে। আসন সংখ্যার অতিরিক্ত কোনো যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। অর্থাৎ যত সিট তত যাত্রী পরিবহন নীতি কার্যকর হবে। দাঁড়িয়ে যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।’

প্রতিটি ট্রিপের শুরু এবং শেষে যানবাহন জীবাণুমুক্ত করতে হবে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি নিয়ম এবং শর্ত মেনে পরিবহন চালাতে মালিক-শ্রমিকদের আহ্বান জানাচ্ছি। পাশাপাশি যাত্রী সাধারণকেও মাস্ক পরিধানসহ নিজের সুরক্ষায় সচেতন থাকার অনুরাধ জানাচ্ছি।’