সংবাদ শিরোনাম

ধান কাটা উৎসবকে ঘিরে মানিকগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজন | বাংলাদেশ-ভারত থেকে করোনা ছড়ানোর খবরকে ‘ফেক নিউজ' বললেন চীনা রাষ্ট্রদূত | 'দেশরক্ষার জন্য নদীরক্ষা অপরিহার্য'- তথ্যমন্ত্রী | দেশের মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানছে না, বেপরোয়া হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী | মির্জাপুরে পেপার ফ্যাক্টরীসহ দুই ইটভাটাকে ৩ লাখ  টাকা জরিমানা | বগুড়ার আদমদীঘিতে স্ত্রী তালাক দেয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা | বাকৃবিতে হাল্ট প্রাইজের দ্বিতীয় রাউন্ড শুরু কাল | বাগেরহাটে শিশু আব্দুল্লাহ হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন | সময়ের কণ্ঠস্বরসহ আরো ৫১টি অনলাইন নিউজ পোর্টালকে নিবন্ধনের অনুমতি | সচেতনতা বৃদ্ধি করতে মাস্ক হাতে রাস্তায় এমপি ও ইউএনও |

  • আজ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আলুবোখারা কেন খাবেন?

১১:৫১ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১, ২০২০ জানা-অজানা
aluu

জানা-অজানা ডেস্কঃ কাটিংকা, হানিটা, আওয়াবাখার অথবা প্রেজেন্টা- এই ফল কত নামেই না সারা বিশ্বে পরিচিত৷ এই গুণের ফলকে যে যে নামেই ডাকুক না কেন, আমরা বাঙালিরা কিন্তু আলুবোখারা বলেই চিনি৷ সারা বিশ্বে মোট দুই হাজার প্রকারের আলুবোখারা রয়েছে৷

গবেষণা বলছে, সুস্থ মানুষের শরীরের প্রয়োজনীয় উপাদানের প্রায় সবই মেলে টক মিষ্টি স্বাদের আলুবোখারায়। আর হার্টকে সুস্থ রাখা ছাড়াও, ক্যান্সার ও কোলস্টেরল নিয়ন্ত্রণে কাজ করে এ ফলটি।

চলুন জেনে নেয়া যাক আলুবোখারার পুষ্টিগুণ সম্পর্কেঃ

আলুবোখারা হল শুকনা পাম ফল। ক্যালরির মাত্রা এতে বেশ কম, তাই যারা ওজন কমাতে চাচ্ছেন তাদের জন্য এটি কোনো সমস্যার কারণ হবে না।

এতে প্রোটিনের মাত্রাও কম, তবে ভোজ্য আঁশের মাত্রা বেশি। প্রতি ১৫ গ্রামে আছে এক গ্রাম আঁশ। তাই ডায়াবেটিস ও রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে বেশ কার্যকর আলুবোখারা।

পটাশিয়ামের উৎস হিসেবে কলার পরেই আছে আলুবোখারা। মল নিঃসরণ নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে আলুবোখারার খ্যাতি আছে। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে কিংবা হজমের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য উপকারী খাবার এটি।

হাড়ের সার্বিক স্বাস্থ্যের উন্নয়নে এবং ঘনত্ব বাড়াতে সহায়ক আলুবোখারা।

এতে আরও থাকে ‘অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট’ ও ভিটামিন ‘এ’, যা চোখ ও ত্বকের জন্য উপকারী। শরীরের লৌহের চাহিদা পুরণ করতেও কার্যকর।

একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ দিনে খুব বেশি হলে তিন থেকে চারটি মাঝারি আকারের আলুবোখারা খেতে পারবেন। আর তাতেই এই শুকনা ফল থেকে সর্বোচ্চ উপাকার পাওয়া যাবে।

সবসময় তাজা আলুবোখারা খাওয়া উচিত। টিনজাত ও প্যাকেটজাত আলুবোখারা যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলাই ভালো। কারণ সেগুলোতে থাকে ‘প্রিজারভেটিভ’ ও কৃত্রিম চিনি।

আলুবোখারার শরবত যা বাজারে ‘প্রুন জুস’ নামে পরিচিত, তা এড়িয়ে চলাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। কারণ তাতে প্রকৃত আলুবোখারার মতো পুষ্টিগুণ থাকে না।

dohaskyline বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ১০ দেশ

শনিবার, নভেম্বর ২১, ২০২০

komola ইতিহাস গড়লেন কমলা হ্যারিস!

শনিবার, নভেম্বর ৭, ২০২০

President Jo Biden কে এই জো বাইডেন?

শুক্রবার, নভেম্বর ৬, ২০২০