‘সরকার ও প্রধানমন্ত্রী যা বলেন, জনগণ তার উল্টোটা বিশ্বাস করে’- রিজভী

rezz

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ ‘বর্তমান সরকার ও প্রধানমন্ত্রী যা বলেন, জনগণ তার উল্টোটা বিশ্বাস করে’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বুধবার দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচে ঢাকা জেলা বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় এ কথা বলেন রিজভী।

সোমবার শোক দিবস উপলক্ষে ছাত্রলীগের আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান, তার স্ত্রী খালেদা জিয়া এবং তাদের ছেলে তারেক রহমান সবার হাতে রক্তের দাগ রয়েছে। জিয়াউর রহমান গুম-খুনের রাজনীতি শুরু করে গেছেন। যার ধারাবাহিকতায় খালেদা জিয়া অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে মানুষ হত্যা করেছেন। আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছেন।’

প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘আপনি (শেখ হাসিনা) আগেও কখনও বলেননি। কিন্তু হঠাৎ করে বিএনপির বিরুদ্ধে এতো অপপ্রচার করছেন। বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা, স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে ১৫ আগস্টের সাথে জড়িয়ে এবং বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারুণ্যের প্রতীক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার সঙ্গে জড়িয়ে নানা কথা বলছেন। আপনার সামর্থ্য থাকলে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন দিন। মানুষ যদি অন্যায় করেন তবেতো মানুষের সমর্থন থাকবে না।’

রিজভী বলেন, ‘আপনি (প্রধানমন্ত্রী) সুষ্ঠু নির্বাচন না দিয়ে একটি অভিনব নির্বাচন ব্যবস্থা চালু করেছেন। দিনের ভোট রাতে করে ফেলছেন। আগেতো ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে দিতেন না, আর এখন সেখানেও নিরাপদ বোধ না করে দিনের ভোট রাতে করছেন। তাই বলছি, একটি সুষ্ঠু ভোট দিন, জনগণ বিচার করবে কে অপরাধী। আপনি তো সুষ্ঠু ভোট দিতে চান না। তাহলে বুঝেন, আপনি কত বড় অপরাধী।’

ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাকের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী প্রমুখ।

Sharing is.

Share on facebook
Share with others
Share on google
Share On Google+
Share on twitter
Share On Twitter