মানবসেবায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ফটিকছড়ির মেহেদী হাসান বিপ্লব

১২:১৮ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২০ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর- ‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্যে’ গানের এই কথাগুলো আজ বাস্তবে যেন রুপ পেয়েছে চট্রগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার মেহেদী হাসান বিপ্লবের কাজের মধ্যে দিয়ে। যার কাজ নিজের সাধ্যের মধ্যে বিপদগ্রস্তদের সহায়তায় এগিয়ে যাওয়া।

নানা অপ্রতুলতার মধ্যেও তিনি খুঁজে বেড়ান অসুস্থ এবং অসহায় মানুষের। যার কাছে ধর্ম-বর্ণ বলে পৃথক কেউ নন। সবাই তার কাছে আপন। এলাকায় তিনি ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ হিসেবে পরিচিত হয়েছেন।

ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুর থানার দাতঁমারা ইউনিয়নের বালুটিলা এলাকায় জন্মগ্রহণ করা মেহেদী হাসান বিপ্লব মাত্র ৩৫ বছর বয়সেই একজন সফল ব্যবসায়ী। বর্তমানে আন্তর্জাতিক কোল এনার্জি কোম্পানি জেএইচএম ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর (ডিএমডি) তিনি।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক পরিয়ে দিচ্ছেন মেহেদী হাসান বিপ্লব

জানা যায়, ব‌্যবসায় সফল তরুণদের এগিয়ে যাওয়ার তালিকায় মেহেদী হাসান বিপ্লব একটি তারার নাম। প্রতি মাসে ব্যবসা থেকে তিনি যে টাকা আয় করেন, তার ৫০ থেকে ৬০ শতাংশই ব্যয় করেন মানবসেবায়। এটাতেই যেন তার সুখ-শান্তি।

সম্প্রতি বালুটিলা বাজার জামে মসজিদের জন্য ৩০০ ব্যাগ সিমেন্ট বরাদ্দ ঘোষণা দিয়েছেন ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান বিপ্লব। ইতিপূর্বে তিনি মসজিদের প্রথম ধাপের কাজ শুরুর সময় ৫০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেন।

এছাড়া দেশের ক্রান্তিকাল করোনার চরম দুর্যোগময় মুহূর্তে মেহেদী হাসান বিপ্লবের মাধ্যমে ফটিকছড়ির আব্দুল্লাহপুর থেকে বাগান বাজার পর্যন্ত অসহায় কর্মহীন হত-দরিদ্র মানুষের মাঝে পর্যাপ্ত ত্রাণ (খাদ্য সামগ্রী), নগদ অর্থ বিতরণসহ অসংখ্য গৃহহীন মানুষের ঘরবাড়ি তৈরি ও মেরামত করে দেওয়া হয়।

মেহেদী হাসান বিপ্লবের অর্থায়নে বিধবা জাহানারাকে এই ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়।

শুধু তাই নয়, ক্যান্সারসহ অনেক জটির রোগে আক্রান্ত অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়ান তিনি। যাদের মধ্যে অনেককেই ঢাকায় এনে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন তিনি। সেইসঙ্গে ফটিকছড়িতে কোভিড-১৯ হাসপাতালের জন্য উপজেলা প্রশাসনের আপদকালীন ফান্ডে ৩ লক্ষ টাকার অনুদানের চেক হস্তান্তর করেন তরুণ শিল্পপতি মেহেদী হাসান বিপ্লব।

এদিকে মেহেদী হাসান বিপ্লবের অর্থায়নে হেয়াকো মজিবনগর এলাকার বিধবা জাহানারা ও তার তিন কন্যার জন্য ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া দাঁতমারা ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডের প্রতিবন্ধীদের অর্থ সহায়তা করেন তিনি।

অন্যদিকে জেএইচএম ইন্টারন্যাশনালের উদ্যোগে করোনাকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে প্রায় দুই হাজার দুস্থ মানুষের জন্য খাদ্যসামগ্রীর প্যাকেট হস্তান্তর করেছেন মেহেদী হাসান বিপ্লব। এছাড়া রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় নিম্নবিত্তদের মাঝে খাদ্যসামগ্রীও বিতরণ করেন তিনি।

প্রতিবন্ধীদের মাঝে অর্থ সহায়তা দেন মেহেদী হাসান বিপ্লব

অল্পসময়ে এসব মানবিক কাজের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের আস্থা ও অফুরন্ত ভালোবাসা অর্জন করায় স্থানীয় কিছু জনপ্রতিনিধির রোষানলের শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান বিপ্লবের।

তিনি বলেন, মানবসেবা পৃথিবীতে সবচেয়ে উত্তম কাজ হওয়ায় আমি ব্যবসা থেকে যা আয় করেছি, সেই আয়ের কিছু অংশ মানুষকে এখন দান করার চেষ্টা করছি। কিন্তু স্থানীয় কিছু জনপ্রতিনিধি আছে যারা এসব ভালো চোখে দেখেননা। তারা বিভিন্ন সময় মানুষের কাছে আমাকে হেয় করার অপচেষ্টা চালায়। তবে আমি বিশ্বাস করি, সৎ পথে থাকলে আল্লাহ সহায় হবেন।

কর্মগুণে আলো ছড়ানো মেহেদী হাসান বিপ্লব বলেন, কুচক্রী মহলের শত বাঁধা-বিপত্তি অতিক্রম করে আমি এগিয়ে যাব। আর যতদিন বেঁচে থাকব, মানুষের জন্য কাজ করে করব।