নারায়ণগঞ্জের সেই মসজিদের একটি এসিও বিস্ফোরিত হয়নি

৯:০০ অপরাহ্ণ | রবিবার, সেপ্টেম্বর ৬, ২০২০ ঢাকা
mos

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিম তল্লায় বায়তুস সালাত জামে মসজিদের ৬টি এসির একটিও বিস্ফোরিত হয়নি বলে জানিয়েছেন বিস্ফোরণের ঘটনায় গঠিত ফায়ার সার্ভিসের তদন্ত কমিটির প্রধান ও পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিল্লুর রহমান।

রোববার (৬ সেপ্টেম্বর) সাংবাদিকদের তিনি বলেন, মসজিদের ৬টি শীতাতপ যন্ত্রের (এসির) একটিও বিস্ফোরিত হয়নি। এ থেকে ধারণা করা যায়, গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে মসজিদে বিস্ফোরণ হয়েছে। বিস্ফোরণের ফলে সৃষ্ট আগুনে মসজিদের ভেতরের এসি পুড়ে গেছে, এগুলো কিন্তু বিস্ফোরিত হয়নি। এসির বাইরের বক্সও অক্ষত আছে।

এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর সিআইডির তদন্ত কমিটির সদস্যও পুলিশ পরিদর্শক জিয়াউদ্দিন উজ্জলও একই কথা বলেছেন। তিনি বলেন, গ্যাস ও বিদ্যুৎ থেকেই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ছয়টি এসির একটিও বিস্ফোরিত হয়নি, হওয়ার কথাও নয়।

এদিকে বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসন, ফায়ার সার্ভিস, তিতাস গ্যাস, সিআইডি এবং ডিপিডিসির পক্ষ থেকে আলাদা পাঁচটি তদন্ত কমিটি গঠনা করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসন পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করেছে। শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেই তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগে সমস্যা-এই দুটি বিষয়কে প্রাধান্য দিয়ে প্রাথমিকভাবে তারা কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট খাদিজা তাহেরা ববি।

তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি করেছে বলে কোম্পানির নারায়ণগঞ্জ অফিসের ডিজিএম মফিজুল ইসলাম জানিয়েছেন। কমিটির প্রধান করা হয়েছে তিতাস গ্যাসের ঢাকা অফিসের মহাব্যবস্থাপক আবদুল ওহাবকে। শনিবার সকালে বিস্ফোরণের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী মোহাম্মদ আল মামুন।

অপরদিকে ডিপিডিসির নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মোর্শেদ কে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। এই তদন্ত কমিটিকে আগামী পাঁচ দিনের মধ্যে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিকে আগামী ১০ কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়।

ঘটনা তদন্তে কাজ করছে সিআইডির পাঁচ সদস্যের একটি দলও।

উল্লেখ্য গত শুক্রবার রাতে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা এলাকার বায়তুস সালাত জামে মসজিদে এশার নামাজের সময় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ২৪ মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে গুরুতর অবস্থায় ১৩ জন ঢাকার শেখ হাসিনা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারিতে চিকিৎসাধীন। আহতদের কেউই শঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন বার্ন ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেন।