• আজ ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নারায়ণগঞ্জের মসজিদে বিস্ফোরণ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৫

১০:৩৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, সেপ্টেম্বর ৬, ২০২০ ঢাকা
nara

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিম তল্লায় বায়তুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় আবুল বাসার মুন্না নামের আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এই ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৫ জনে দাঁড়িয়েছে।

রোববার রাতে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুন্না মারা যান। বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন বার্ন ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেন।

ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘আবুল বাসার মুন্নাসহ এখন পর্যন্ত ২৫ জন মারা গেছে বিস্ফোরণের ঘটনায়। এ ছাড়া আরো যারা চিকিৎসাধীন রয়েছে তাদের অবস্থাও খুবই আশংকাজনক।’

এদিকে, মসজিদে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ মামলা করেছে। অবহেলার কারণে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ মামলায় উল্লেখ করেছে।

রোববার সকালে ফতুল্লা মডেল থানার এসআই হুমায়ন কবির বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

অন্যদিকে মসজিদে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ও হতাহতের ঘটনায় তিতাস, বিদ্যুৎ ও মসজিদ কমিটির অবহেলা রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখবে ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি। যাদের অবহেলায় ভয়াবহ এ ঘটনা ঘটেছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসলাম হোসেন মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পশ্চিম তল্লা বায়তুস সালাত জামে মসজিদের ভয়াবহ বিস্ফোরণ অবহেলায় ঘটেছে। যার কারণে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। আসামি অজ্ঞাত করা হয়েছে। যাদের অবহেলায় এ ঘটনা ঘটেছে, তদন্তের রিপোর্টে যারা দোষী হবে তারাই এ মামলার আসামি হবে। তাদেরকে এ মামলায় আইনের আওতায় আনা হবে।

উল্লেখ্য শুক্রবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকার বায়তুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ হন ৩৭ জন মুসল্লি। বিস্ফোরণের ঘটনায় পৃথক তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, তিতাস গ্যাস ও নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন আলাদাভাবে এসব কমিটি গঠন করে। শুক্রবার বিস্ফোরণের পরদিন সকালে এসব কমিটি গঠন করা হয়।