‘দুর্নীতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে’- মেয়র তাপস

১২:১০ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০ ঢাকা
tapos

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকাঃ ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনকে (ডিএসসিসি) একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ ও মর্যাদাশীল সংস্থা হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করে সংস্থার দুর্নীতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

মঙ্গলবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র হানিফ অডিটোরিয়ামে ডিএসসিসির অঞ্চল সমূহের রাজস্ব কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতি বুধবার যেকোনো জায়গা যেকোনো সময় তাৎক্ষণিক অভিযানে যাবেন মেয়র তাপস। এ সময় কোনো বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স বা হোল্ডিং ট্যাক্সের আওতায় না থাকলে ওই কর কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাজের সুবিধার্থে ও রাজস্ব আহরণ বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে পর্যায়ক্রমে সকল সমস্যা ও সংকটের যথাযথ সমাধান করা হবে জানিয়ে ডিএসসিসি মেয়র বলেন, দুষ্টের দমন শিষ্টের লালন অব্যাহত থাকবে। যারা ভালো কাজ করবেন, যারা আন্তরিকতা-নিষ্ঠা ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করবেন, তাদেরকে অবশ্যই মুল্যায়ন করা হবে। আর যারা দুর্নীতিগ্রস্ত থাকবেন, তাদের বিরুদ্ধে অনতিবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাদেরকে অপসারণ করা হতে পারে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। এ ব্যাপারে কোনো রকম ছাড় দেয়ার প্রশ্ন তো নেই, এ ব্যাপারে কোনো অলসতাও বরদাস্ত করা হবে না।

তাপস বলেন, আমাদের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা সাড়ে ৩শ’ কোটি টাকা ছিল। সেই সাড়ে ৩শ’ কোটি টাকাই রেখেছি, বৃদ্ধি করিনি। আমি জানি আপনাদের সমস্যা রয়েছে। আমি সমস্যার যেমনি সমাধান করব পর্যায়ক্রমে আপনাদের সুবিধাও বাড়াব। আমি জানি, কিছু পেতে হলে আগে কিছু দিতে হয়। আমি দেয়ার জন্য মনোনিবেশ করেই এই পদে এসেছি। নির্বাচন করেছি।

তিনি বলেন, আপনারা জানেন আমি প্রত্যেক বুধবার বিভিন্ন জায়গায় পরিদর্শনে যাই। আমি যেকোনো বাসায় যেতে পারি। যেকোনো দোকানে যেতে পারি। যেকোনো কারখানায় যেতে পারি। প্রতিষ্ঠানের রাজস্ব আদায় হয়েছে নাকি বা তার মূল্যায়ন হয়েছে নাকি, আমি জিজ্ঞেস করতে পারি। সেখানে যদি সঠিকভাবে সেই রাজস্ব বা হোল্ডিং ট্যাক্স আদায় না হয় বা ওই প্রতিষ্ঠান অথবা বাসা যদি আমাদের কর এর অন্তর্ভুক্ত না থাকে বা ট্রেড লাইসেন্সবিহীন ব্যবসা চালিয়ে থাকে, তাহলে সেই এলাকায় করের দায়িত্বে যিনি থাকবেন তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আরুফুল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ডিএসসিসি’র নবনিযুক্ত প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা এবিএম আমিন উল্লাহ নুরী বলেন, ‘সিটি কর্পোরেশন একটি সেবামূলক সংস্থা। এই সংস্থাকে জনবান্ধব সংস্থায় পরিণত করতে আপনাদের আন্তরিক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকলে, আমরা এই অর্থবছরে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করতে পারব বলেই বিশ্বাস করি।’

মত বিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে কর্পোরেশনের সচিব আকরামুজ্জামানসহ সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।