সংবাদ শিরোনাম
ফরিদপুরে ৩০ দিন পার করে ৩১ তম দিনে ছাত্রলীগের ত্রাণ কার্যক্রম | পাওয়ানা টাকা আনতে গিয়ে কলেজ ছাত্র নিখোঁজ! | আধুনিকতার ছোঁয়ায় হারিয়ে গেছে হবিগঞ্জের করাতি সম্প্রদায়ের পেশা! | রাসিক মেয়র লিটনের উদ্যোগে নতুন রূপ পাচ্ছে “ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি” | লক্ষ্মীপুরে হাসপাতালের পিয়ন এখন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার! | সিলেটে চাকরি দেয়ার নামে অর্থ আত্মসাৎ, নারীসহ দুই প্রতারক গ্রেপ্তার | রংপুরকে ডিজিটাল ইকোনামিক হাব হিসেবে গড়ে তোলা হবে: এমপি পলক | মসজিদে বিস্ফোরণ: ৩৫ পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে সহায়তা প্রধানমন্ত্রীর | এবার সাইবার বুলিংয়ের মামলা করলেন ঢাবির সেই ছাত্রী | কারাবন্দি থেকে প্রমোশন পেয়ে খালেদা জিয়া এখন গৃহবন্দি: গয়েশ্বর |
  • আজ ৯ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রতিবেশী গৃহবধুকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুরবাড়ি থেকে আটক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক

৮:০৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০ খুলনা, দেশের খবর

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি, সময়ের কণ্ঠস্বর- দীর্ঘদিন ধরে অনৈতিক প্রস্তাবসহ উত্যক্ত করা এবং বাসায় কেও না থাকার সুযোগে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের মামলায় সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার কাটামারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফারুক মোল্লাকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে আদালত।

আজ বুধবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মফিজুর রহমান তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

এর আগে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত আসামি ফারুক মোল্লাকে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অভিযুক্ত শিক্ষকের শ্বশুর বাড়ি আশাশুনির গোয়ালডাঙা গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। শিক্ষক ফারুক মোল্লা আশাশুনি উপজেলার কাপষন্ডা গ্রামের ছহিল উদ্দিন মোল্লার ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, শিক্ষক ফারুখ মোল্লা একই গ্রামের এক স্বামী পরিত্যক্তা নারীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টায় অধিক রাতে বাদিনীর বাড়ির উপর দিয়ে যাতায়াত করতেন। বিষয়টি বাদিনী তার স্বামীকে জানান। স্বামী ফারুখ মাস্টারকে তাদের বাড়ির উপর দিয়ে যেতে নিষেধ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে গত বছরের ৩ মে রাতে ফারুখ বাদিনীকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণ করেন। চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে ফারুখ পালিয়ে যান। থানা মামলা না নেওয়ায় ১৬ মে বাদিনী সাতক্ষীরার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্রুনালে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। বিচারক হোসনে আরা আক্তার মামলাটি এজাহার হিসেবে গণ্য করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন।

মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা আশাশুনি থানার উপপরিদর্শক মো. মামুনুর রহমান এজাহারভুক্ত ফারুক হোসেনের নামে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। বাদিনীর বিরুদ্ধে আদালতে নারাজীর আবেদন দাখিল করেন। বিচারক তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সাতক্ষীরার মুখ্য বিচারিক হাকিমকে নির্দেশ দেন।

বিচারক পাভেল রায়হান ঘটনার সত্যতার কথা উল্লেখ করে প্রতিবেদন দাখিল করলে হোসনে আরা আক্তার আসামি ফারুখ হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দেন। সে অনুযায়ি মঙ্গলবার পুলিশ গোয়ালডাঙার শ্বশুরবাড়ি থেকে ফারুখ হোসেনকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠায়।