বিশ্ববাসীকে পরবর্তী মহামারীর জন্য প্রস্তুত হতে হবে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

৮:৪০ অপরাহ্ণ | বুধবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০ আন্তর্জাতিক
gute

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সারা বিশ্বে আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৭৭ লক্ষের বেশি মানুষ। করোনায় এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ লক্ষের উপরে। এর মধ্যে দ্বিতীয় অতিমারীর জন্য প্রস্তুত হতে বলল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস বলছেন, ‘এটাই শেষ মহামারি নয়। ইতিহাস আমাদের শিক্ষা দিয়েছে বারবার মহামারির আগমন খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। তাই আমাদের এখন থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। যাতে এরপর যখন মহামারি আসবে, তখন আমরা এর চেয়ে বেশি প্রস্তুত থাকতে পারি।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান এখন থেকেই দেশগুলিকে জনস্বাস্থ্যে জোর দিতে অনুরোধ করেছেন। তিনি বলছেন, ‘জনস্বাস্থ্য সামাজিক, অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক সু-স্থিরতার ভিত্তি। তাই জনস্বাস্থ্যে খরচ করার অর্থ হল আরও সুস্থ এবং সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের ভিত তৈরি করা।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিশ্বের সব দেশের কাছে অনুরোধ করে বলেছেন, ‘দয়া করে স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় আরও বেশি বেশি করে বিনিয়োগ করুন। বিশেষ করে প্রাথমিক স্বাস্থ্যে। যাতে আমরা নতুন কোন রোগ সহজেই শনাক্ত করতে পারি। এবং তা প্রতিরোধ করতে পারি।’

করোনা মোকাবিলায় বহু দেশের প্রস্তুতি নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভূমিকা নিয়েও। তাই পরবর্তী ক্ষেত্রে যাতে এমনটা না হয়, তা নিশ্চিত করতে চাইছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

করোনার আগে সোয়াইন ফ্লু, জিকা ভাইরাস, পোলিও সংক্রমণ এবং দু’বার ইবোলা সংক্রমণের সময়ে বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্যক্ষেত্রে জরুরি অবস্থা জারি করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কিন্তু কোন ক্ষেত্রেই পরিস্থিতি এতটা ভয়াবহ হয়নি। এ বছর করোনার প্রকোপ অন্য সব মহামারীর মিলিত ক্ষতিকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে, এই আশঙ্কায় প্রহর গুনছে বিশ্ববাসী। এর মধ্যে আবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে আগামী মহামারি হবে আরও ভয়ংকর।

উল্লেখ্য, গত বছর ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা যায়। কিন্তু সেখান থেকে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করার পরে গোটা বিশ্বকে তছনছ করে ফেলেছে এই সংক্রমণ। চীন সংক্রমণ মুক্ত হয়ে গেলেও একের পর এক দেশ কঠিন থেকে কঠিনতম পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে থাকে। সংক্রমণের দাপট রুখতে লকডাউন জারি করতে হয়, স্তব্ধ হয়ে পড়ে জীবন।

এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২ কোটি ৭৭ লাখ ৩৮ হাজার ছাড়িয়েছে। আর এ মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৯ লাখ।