• আজ বুধবার, ২৯ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ১২ মে, ২০২১ ৷

চলতি মাসেই ইরাক থেকে এক তৃতীয়াংশ সেনা প্রত্যাহার করছে যুক্তরাষ্ট্র

❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০ আন্তর্জাতিক
sena

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ এক সপ্তাহের মধ্যেই ইরাক হতে এক-তৃতীয়াংশ মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির সেনাবাহিনীর মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলের প্রধান জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি। বুধবার (০৯ সেপ্টেম্বর) এ ঘোষণা দেয়া হয় বলে খবর প্রকাশ করেছে কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আল-জাজিরা।

মার্কিন ওই সেনা কমান্ডার জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি জানান, ইরাকে নিয়োজিত ৫২০০ মার্কিন সেনার মধ্যে ২২০০ সেনাকে এক সপ্তাহের মধ্যেই সরিয়ে নেওয়া হবে। ওই সেনারা আইএস এর বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনীকে সহায়তা করে আসছিল।

এটি ইরাকে ২০০৩ সালে শুরু হওয়া মার্কিন আগ্রাসনের পর সেনা প্রত্যাহারের প্রথম অফিসিয়াল ঘোষণা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরাকের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের অভিযোগ এনে হামলা চালায়। যদিও পরে মার্কিন দাবি মিথ্যা প্রমাণিত হয়।

অবশিষ্ট ৩ হাজার মার্কিন সেনা ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনীকে আইএস দমনে সহযোগিতা করার জন্য রেখে দেয়া হবে।

মার্কিন প্রশাসনের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, শিগগিরই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন।

গত মাসে ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে নিজের পরিকল্পনার বিষয়টি পুনরায় নিশ্চিত করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় ইরাক থেকে সেনাদের ফিরিয়ে আনা ও যুক্তরাষ্ট্রের ‘অন্তহীন যুদ্ধ’ অবসানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি।

উল্লেখ্য আগামী ৩ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। নির্বাচনী জরিপে ডেমোক্র্যাটিকে প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের চেয়ে পিছিয়ে আছেন ট্রাম্প। তাই সবকিছু মিলিয়ে এই সময়েই তার নিজের ভাষ্য অনুযায়ী ‘অন্তহীন যুদ্ধ থেকে আমেরিকাকে বের করে’ আনার প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন তিনি। আর তা ভোটারদের প্রভাবিত করতেই করা হচ্ছে বলে বিশ্লেষকদের ধারণা।