নায়লা নাঈমের বাসায় পাঁচ শতাধিক বিড়াল, দুর্গন্ধে অতিষ্ট প্রতিবেশীরা

nayla
❏ শনিবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২০ বিনোদন

বিনোদন ডেস্কঃ বিভিন্ন মিউজিক ভিডিওটিতে অভিনয় করে দর্শকপ্রিয় হয়েছেন অভিনেত্রী নায়লা নাঈম। তবে অবাক করার মতো একটি ঘটনা হলো নিজের বাসাতেই পাঁচ শতাধিক বিড়াল পালেন তিনি। আর বিড়ালের দুর্গন্ধে অতিষ্ট প্রতিবেশিরা।

শুধু তাই নয় এমন অবস্থার কারণে একজন প্রতিবেশি অভিযোগও করেছেন। আর এমন অভিযোগের কারণে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিড়াল সরিয়ে নেয়াও প্রতিশ্রতি দিয়েছেন নায়লা নাঈম।

নায়লা নাঈম প্রায় চার বছর ধরে বসবাস করেন রাজধানীর আফতাবনগরে। নগরের বি-ব্লকের-২ নং রোডের – নং বাসার ৭ম তলার দুইটি ফ্ল্যাট তার মালিকানায়। ওই ফ্ল্যাটের একটি তিনি বিড়াল পালছেন। এছাড়া ভবনের নিচ তলায় তার একটি অফিস কক্ষ রয়েছে। অফিস কক্ষটি ডেন্টাল ডাক্তার হিসেবে ভাড়া নিলেও কখনোই সেখানে কোনো রোগী দেখার কাজ হয় না।

এর আগে নায়লা নাঈম খিঁলগাওয়ে ৪ বছর বসবাস করেছেন। সেখানে বিড়াল পালন নিয়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে ঝামেলায় জড়ান তিনি। পরে সেখান থেকে বাসা স্থানান্তর করে আফতাবনগরে বসবাস শুরু করেন।

ফ্ল্যাট মালিক সমিতির এক সদস্য জানান, পুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে বিষয়টি পুলিশের বাড্ডা জোনের এক সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট পুলিশ কমিশনারের ওপর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি তাঁর কার্যালয়ে গিয়ে নায়লা নাঈম আগামী ৩০ তারিখের মধ্যে বিড়াল সরিয়ে নেয়ার লিখিত প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এ উদ্যোগ নেয়ায় ফ্ল্যাট মালিকরা সন্তুষ্ট এবং তারা পুলিশ কমিশনারের ওপর আস্থা রাখছেন বলে জানিয়েছেন।

একাধিক প্রতিবেশীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, চার বছর ধরে এই সমস্যা হচ্ছে। তিনি বাণিজ্যিকভাবে বিড়ালের খামার হিসেবে আবাসিক এলাকার ফ্ল্যাট ব্যবহার করছেন। ফ্ল্যাটের পরিবেশও খুব অস্বাস্থ্যকর। বিড়াল পালনের জন্য তিনি স্থানীয় আবাসিক সমিতি থেকে কোনো অনুমতি নেননি।

তারা জানান, বিড়ালের দুর্গন্ধে এই ভবনের বাসিন্দাদের মধ্যে সব সময় অসুখ লেগে থাকে। বিশেষ করে সব বর্জ্য লিফটে আনা-নেয়া করায় সমস্যাটা বেশি হয়ে থাকে। তাছাড়া বিড়ালের খামারে ব্যবহৃত ময়লা-অস্বাস্থ্যকর কাপড় ও অন্যান্য দ্রব্য ছাদে নিয়ে পরিস্কার করা হয়। ফলে অন্যরা ছাদে গেলে বিপাকে পড়েন।

নায়লা নাঈমের বাণিজ্যিকভাবে বিড়াল পালনের অনুমতি রয়েছে তা জানা যায়নি।