সংবাদ শিরোনাম
৫ অক্টোবর ঢাকায় আসছেন ভারতের নতুন হাইকমিশনার | পাবনা-৪ আসন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস বিজয়ী | ‘বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ ভ্যাকসিন উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে’- শেখ হাসিনা | ‘মিয়ানমারকেই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে হবে’- প্রধানমন্ত্রী | শেরপুরে শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে আটক-১ | পদত্যাগ করলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী মোস্তফা আদিব | নীলা হত্যা মামলা: প্রধান আসামি মিজান ৭ দিনের রিমান্ডে | ‘আওয়ামী মন্ত্রীদের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ পড়েছে’- রিজভী | ‘শেখ হাসিনা আছেন বলে আমরা স্বপ্ন দেখার সুযোগ পেয়েছি’- পররাষ্ট্রমন্ত্রী | ছাত্রাবাসে গণধর্ষণের ঘটনায় তদন্ত কমিটি, ২ জন বরখাস্ত |
  • আজ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বগুড়ায় রুয়েট শিক্ষার্থীকে কুপিয়েছে সৎ ভাই

৫:৫৮ অপরাহ্ণ | বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০ দেশের খবর, রাজশাহী

সাখাওয়াত হোসেন জুম্মা, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার ধুনট উপজেলায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষার্থী হাফিজুর রহমানকে (১৯) কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে তার সৎ ভাই। বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টার দিকে ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের বিশ্বহরিগাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলার বিশ্বহরিগাছা গ্রামের মৃত আজাহার আলীর ছেলে হাফিজুর রহমান রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষার্থী। করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় কয়েক মাস ধরে তিনি নিজ বাড়িতে মা ও ভাইয়ের সাথে অবস্থান করছেন। পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে তার সৎ ভাই ফজর আলী (৫০) দীর্ঘদিন ধরে হাফিজুর রহমান ও তার মা-ভাইকে অত্যাচার করে আসছিল। সৎ ভাই ফজর আলীর অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে দূর্বিষহ জীবনযাপন করছেন হাফিজুর রহমানও তার পরিবারের লোকজন।

একই আঙ্গিনায় বসবাসের সুবাদে বুধবার সকালের দিকে ফজর আলী ও তার স্ত্রী মেরিনা খাতুন চুলা জ্বালিয়ে ধুয়ার কুন্ডলি হাফিজুরের ঘরের ভেতর দিতে থাকে। এসময় ধুয়ার কারণে তাদের শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। তখন এ ঘটনার প্রতিবাদ করেন হাফিজুর রহমান ও তার বড় ভাই ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ডিএমসি) শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ফজলুল হক অর্ক। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে ফজর আলী ও তার লোকজন হাফিজুরের একটি কাঠাল গাছ কেটে ক্ষতি করে।

এ ঘটনা নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ফজল আলী ও তার লোকজন কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হাফিজুর রহমানকে আহত করে। এসময় ভাইকে রক্ষা করতে গেলে ফজলুল হক অর্ককেও পিটিয়েছেন ফজর আলী ও তার লোকজন।

আহত হাফিজুর রহমান ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ওই অভিযোগে ফজর আলী, তার স্ত্রী মেরিনা খাতুন ও মেয়ে সনিয়া খাতুনকে আসামি করা হয়েছে। ঘটনার পর ফজর আলী ও তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগটি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।