• আজ ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

১৯ বছরেই সফল ডিজিটাল মার্কেটার তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী তুহিন

৫:০১ অপরাহ্ন | শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০ প্রজন্মের ভাবনা

প্রজন্মের ভাবনা ডেস্ক- মাইনুল ইসলাম তুহিন, পড়ছেন রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে। এরইমধ্যে একজন ডিজিটাল মার্কেটার হিসাবে নিজের নাম লিখিয়েছেন তিনি।

বরগুনা জেলার পাথঘাটা উপজেলায় জন্ম নেওয়া এই তরুণ শৈশব থেকেই নতুনত্ব নিয়ে চিন্তা-ভাবনা ও গবেষণা নিয়ে মগ্ন থাকতেন। বর্তমানে তার উদ্যোগে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলোতে একটি দুর্দান্ত স্থানে অবস্থান করছে। তবে শুধু সোশ্যাল মিডিয়াতেই নয়, শিক্ষার্থী তুহিন একজন সফল ব্লগার এবং ভার্চুয়াল উদ্যোক্তাও।

জানা যায়, মাইনুল ইসলাম তুহিন অল্প বয়সেই ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ শুরু করেন। পরে এক পর্যায়ে  ‘TuhinTube’ নামে নিজের একটি প্রতিষ্ঠান শুরু করেন তিনি। বর্তমানে ফেসবুকের জন্য কন্টেন্ট তৈরীর কাজ করছে তার প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়া বিভিন্ন ধরনের এজেন্সির হয়ে কনটেন্ট প্রজেকশন এবং ডিস্ট্রিবিউশনের মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং করেন তারা।

ডিজিটাল চ্যানেল ব্যবহার করে পণ্যের প্রমোশন করাই হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং। সোশ্যাল মিডিয়া, সার্চ ইঞ্জিন, ইনফ্লুয়েন্সার্ মার্কেটিং-এসবই ডিজিটাল মার্কেটিং এর অন্তর্ভুক্ত। বর্তমান যুগের ডিজিটাল মার্কেটিংকে বিশাল একটি সম্ভাবনা ক্ষেত্রে বলে মনে করেন এই তরুণ।

মাইনুল ইসলাম তুহিন বলেন, ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কাজ শুরু করতে চাইলে প্রথমে তার দক্ষতা বাড়াতে হবে। কারণ সঠিক জ্ঞান নিয়ে এই সফলতার দিকে এগিয়ে যাওয়া যায়। কিন্তু অজ্ঞতা নিয়ে বারবার শুধু অসফলতার দিকেই আসতে হয়। এর জন্য সবার প্রথমে দক্ষতা বাড়াতে হবে। এরপর অনুসন্ধান করতে হবে প্রতিনিয়ত চোখ কান খোলা রেখে। পাশাপাশি জানতে হবে বিভিন্ন টুলস এর ব্যবহার। কি ধরনের কনটেন্ট পছন্দ করছে লাখো মানুষ সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। তবে ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে কনটেন্ট তৈরি গুরুত্বপূর্ণ বলে জানান মাইনুল ইসলাম তুহিন।

এদিকে শিক্ষার্থী তুহিন শুধু একজন ডিজিটাল মার্কেটারই নন, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে সামাজিক নানা কর্মকাণ্ডে যুক্ত রয়েছেন তিনি। বিভিন সময় নিজের অর্জিত টাকায় কেনা খাদ্যদ্রব্য নিয়ে অসহায় মানুষের কাছে ছুটে যান তুহিন।

সবার উদ্দেশ্যে তুহিন বলেন, নিজের ইচ্ছার বাহিরে কোন কাজ করতে যেও না, এতে তোমার সাফল্যের চেয়ে ক্ষতির সম্ভাবনা বেশি থাকে। তুমি তোমার ইচ্ছা অনুযায়ী পরিশ্রমকে ছোট করে লক্ষ্যকে বড় করে সফলতার দিকে এগিয়ে যাওয়ার মাধ্যমে তোমার নিজেকে আবিষ্কার করো।

পরিশেষে বলতে চাই, যতই অন্ধকার হোক-তা পেছনে পেলে আমাদের আরও বহুদূর যেতে হবে, এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে সোনার বাংলাদেশকে।

nari ‘শেকল ভাঙার পদযাত্রা’

বুধবার, অক্টোবর ১৪, ২০২০

syla ফুটপাতে প্রস্রাব করলেই মেডেল!

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯

BRIKKHO টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে ১ দিনে লাখো গাছ রোপণ

মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

এবার সিলভার কার্প মাছের নুডুলস উদ্ভাবন!

বৃহস্পতিবার, জুলাই ৪, ২০১৯

TASLIMA শাড়ি পরার কারণ জানালেন তসলিমা

মঙ্গলবার, জুন ২৫, ২০১৯