জার্মানির শহরে আজানের অধিকার ফিরে পেলেন মুসলিমরা

৯:১২ পূর্বাহ্ন | বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০ আন্তর্জাতিক
ger

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ জার্মানির একটি শহরে মাইকে আজান নিষিদ্ধের মামলায় মুসলিমদের জয় হয়েছে। জানা গেছে, মাইকে আজান দেয়া নিষিদ্ধ করার দাবিতে স্থানীয়রা মামলা করেন। টানা পাঁচ বছরের আইনি লড়াই শেষে মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন জার্মান আদালত।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) জার্মানির উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ রাইন-ওয়েস্টফালিয়া’র ওরে-এরকেনসচিক প্রদেশের একটি আদালত এ রায় দেন। এ রায়ের ফলে ওই অঞ্চলে মাইকে শব্দ করে আজান দিতে আর কোনো বাধা রইলো না।

জার্মানির উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়া অঙ্গরাজ্যের ওয়ের-এরকেন্সউইক শহরের মুসলিম জনগোষ্ঠীটি মূলত তুর্কি বংশোদ্ভূত। দিতিব নামের এই জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে মাইকে আজান দেওয়ার মাধ্যমে অন্যদের ধর্মীয় স্বাধীনতা হরণের অভিযোগ আনা হয় ২০১৫ সালে। শহরটির কর্তৃপক্ষ দিতিব জনগোষ্ঠীকে দুপুরের ১৫ মিনিট আগে মসজিদের মাইক ব্যবহারের অনুমতি দিয়ে রেখেছিল।

তবে একটি মসজিদ থেকে মাত্র নয়শ’ মিটার দূরে বসবাসকারী এক দম্পতি শহর কর্তৃপক্ষের ওই অনুমোদনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। তাদের অভিযোগ ছিলো আজানের শব্দের কারণে তাদের ধর্মীয় স্বাধীনতা ক্ষুণ্ন হচ্ছে। ওই মামলা দায়েরের পর থেকেই শহরটিতে আজান দেওয়া বন্ধ হয়ে যায়।

তবে বুধবার সেই দম্পতির যুক্তি খারিজ করে দেয় মুয়েন্সটার শহরের আদালত। ফলে শহরটিতে আবারও আজান দেওয়ার অধিকার ফিরে পেয়েছে মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা।

রায়ে আদালত বলেন, ‘প্রত্যেক জাতি বা সম্প্রদায়কেই অন্য জাতি বা সম্প্রদায়ের ধর্মীয় কার্যক্রম এবং প্রার্থনার সময় পূর্ণ স্বাধীনতা দিতে হবে। এবং কিছু বিষয় নিজে থেকেই মেনে নিতে হবে।’

আদালত বলেন, ‘যতদিন পর্যন্ত কেউ কাউকে নিজের ধর্ম পালনে বাধ্য করবে না ততদিন পর্যন্ত এ ধরণের অভিযোগ অগ্রহণযোগ্য।’

ফরাসি পণ্য বয়কটের ডাক এরদোয়ানের

সোমবার, অক্টোবর ২৬, ২০২০