সংবাদ শিরোনাম

ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়, ত্যাগের মহিমায় জীবন সাজান: কাদেরআল্লাহ’র সঙ্গে শিরক, নিষিদ্ধ হলো তুরস্কের বিখ্যাত ‘ইভিল আই’ তাবিজক্ষমা চাইলেন এমপি একরামুলএবার এসএসসি-এইচএসসিতে অটোপাস সম্ভব নয়: শিক্ষামন্ত্রীবাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দনসৈয়দপুর-রংপুর মহাসড়ক থেকে অজ্ঞাত লাশ উদ্ধারনন্দীগ্রামে আন্তজেলা ডাকাত দলের সদস্য গ্রেফতারশাহজাদপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তাদের অর্থায়নে পাকা ঘর পাচ্ছে প্রতিবন্ধী দম্পতিবাংলাদেশে পরীক্ষা চালানোর জন্য ২০ লাখ টিকা দিয়েছে ভারত: রিজভীফরিদপুরের ভাঙ্গায় ট্রাক-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষ: ২ স্কুলছাত্র নিহত

  • আজ ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পাবনা-৪ আসন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস বিজয়ী

◷ ১১:৩৯ অপরাহ্ন ৷ শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০ রাজশাহী
nuru]

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ পাবনা-৪ আসনের (ঈশ্বরদী-আটঘোরিয়া) উপনির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নূরুজ্জামান বিশ্বাস নৌকা প্রতীক নিয়ে ২ লাখ ৩৯ হাজার ৯২৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও পাবনা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব পেয়েছেন ৫ হাজার ৫৭৬ ভোট।

শনিবার অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে লাঙল প্রতীকের প্রার্থী রেজাউল করিম পেয়েছেন ৩ হাজার ৭৪ ভোট। এদিকে ধানের শীষের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব নির্বাচনে অংশ নিলেও নানা অনিয়মের কারণ দেখিয়ে দুপুর ১২টার দিকে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান।

মুক্তিযোদ্ধা নূরুজ্জামান বিশ্বাস বিজয়ের ফলাফল পাওয়ার পর সংক্ষিপ্ত প্রতিক্রিয়ায় ঈশ্বরদী ও আটঘোরিয়াবাসীদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ‘আবারো এখানে মুক্তিযুদ্ধ পক্ষ শক্তির বিজয় অর্জিত হলো।’

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও এই নির্বাচনের সমন্বয়ক এস এম কামাল হোসেন নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হওয়ায় ঈশ্বরদী ও আটঘোরিয়ার মানুষকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের এই এলাকায় উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানিয়েছেন। এসময় তিনি এই এলাকার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানান।

উল্লেখ্য, গত ২ এপ্রিল সাংসদ শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুতে পাবনা-৪ আসন শূন্য ঘোষণা করা হয়। এরপর ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন করার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে তা সম্ভব হয়নি। পরবর্তীতে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার মধ্যে ২৬ সেপ্টেম্বর পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।