সংবাদ শিরোনাম
চাঁদপুরে জনবল সংকটে পুলিশ: জেলেদের হামলা অব্যাহত | কয়েদির পোশাকে ভাইরাল মিন্নির ছবি, জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা | মুসলিমদের অনুভূতি আমি বুঝতে পেরেছি : ম্যাঁক্রো | এবার রাশিয়াকে আংশিক মুসলিম রাষ্ট্র বললেন পুতিনের মুখপাত্র | চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পরদিনই বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা | ‘মাদরাসা শিক্ষা নিয়ে অপপ্রচারের সুযোগ নেই’- তথ্য প্রতিমন্ত্রী | ইয়েমেনের যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রীকে হত্যাকারী ঘাতক নিহত | বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসায় উপমহাদেশজুড়ে তোলপাড় হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী | মত প্রকাশের স্বাধীনতায়ও সীমাবদ্ধতা আছে: জাস্টিন ট্রুডো | ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার কারণে এক সপ্তাহে ৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার |
  • আজ ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিতর্কিত অঞ্চল না ছাড়া পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার হুমকি আজারবাইজানের

১২:২৭ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১, ২০২০ আন্তর্জাতিক
aaaar

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ বিতর্কিত নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজানের মধ্যে যুদ্ধ চলছে। বিতর্কিত অঞ্চল না ছাড়া পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট। আর আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রীও লড়াই করে শান্তি ফেরানোর কথা বলছেন।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ বলেছেন, নগরনো-কারাবাখ পার্বত্য অঞ্চল থেকে আর্মেনিয়া সেনা প্রত্যাহার করে নিলে তিনি ওই অঞ্চলে তার দেশের সামরিক অভিযান বন্ধ রাখবেন। তিনি বুধবার সীমান্ত সংঘর্ষে আহত আজারি সেনাদের দেখতে হাসপাতালে গিয়ে এ শর্ত বেঁধে দেন।

প্রেসিডেন্ট আলিয়েভ বলেন, নগরনো-কারাবাখ অঞ্চলে থেকে আর্মেনীয় সেনাদের নিঃশর্ত প্রত্যাহার করা হলেই কেবল তিনি তার সেনাদেরকে অভিযান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেবেন।

নগরনো-কারাবাখ অঞ্চলে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সেনাবাহিনীর মধ্যে সংঘাত অব্যাহত রয়েছে জানিয়ে আজারি প্রেসিডেন্ট বলেন, আজারবাইজান তার দেশের হাতছাড়া হয়ে যাওয়া সব ভূমি পুনরুদ্ধারের কাজে নেমেছে এবং এই কাজ করার অধিকার তার দেশের রয়েছে।

উল্লেখ্য গত রোববার সকাল থেকে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সেনাবাহিনীর মধ্যে সীমান্তবর্তী বিতর্কিত নগরনো-কারাবাখ অঞ্চলে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে এখন পর্যন্ত দু’পক্ষের বেসামরিক নাগরিকসহ শতাধিক ব্যক্তি নিহত ও কয়েকশ’ মানুষ আহত হয়েছে।

কারাবাখ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে ১৯৮৮ সালে উত্তেজনা শুরু হয় যা ১৯৯১ সালে সশস্ত্র সংঘাতে রূপ নেয়। বিদেশি হস্তক্ষেপের কারণে বর্তমানে আবার সে সংঘাত মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে।