সংবাদ শিরোনাম
‘আমি এমন একজনের ভোট পেয়েছি, যার নাম ডোনাল্ড ট্রাম্প’ | বার্সেলোনাকে হেসে খেলে হারিয়ে রিয়ালের এল ক্লাসিকো জয় | ‘আমি ক্ষমতায় থাকি বা না থাকি, বিরোধী দলের নেতারা ক্ষমতায় ফিরবে না’- ইমরান | বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো প্রেমিকা! | গৃহকর্মী সাদিয়ার বাড়িতে শোকের মাতম, জড়িতদের ফাঁসির দাবি | তেঁতুলিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন ২ জন | পঙ্গপালের আক্রমনে দিশেহারা ইথিওপিয়া, খাদ্য সংকট চরমে! | ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের মানসিক পরীক্ষা করা দরকার: এরদোগান | চুল কেটে সিনেমা থেকে বাদ পড়লেন বাপ্পি চৌধুরী! | মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ: অভিযুক্ত মাদ্রাসা সুপারকে আটক করেছে জনতা |
  • আজ ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘জিয়ার অপকর্ম ঢাকতেই মানববন্ধন করছে বিএনপি’- তথ্যমন্ত্রী

৬:৫৯ অপরাহ্ন | রবিবার, অক্টোবর ৪, ২০২০ জাতীয়
tottho

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ জিয়াউর রহমানের অপকর্ম ঢাকতেই বিএনপি মানববন্ধন করছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। রবিবার (৪ অক্টোবর) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে চলচিত্র নির্মাতা, গবেষক ও প্রশিক্ষকদের সঙ্গে সভাশেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান যে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত ছিল এবং বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুনর্বাসিত করেছেন, সেগুলো দিবালোকের মতো স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এগুলো যখন পত্রপত্রিকায় ছাপানো হচ্ছে, জনগণের কাছে বিশ্বাসযোগ্য আকারে গণমাধ্যম উপস্থাপন করছে তখন বিএনপির গাত্রদাহ শুরু হয়েছে।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, আওয়ামী লীগ আগে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করেছে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করতে চায়-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গয়েশ্বর বাবু, বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি হচ্ছে আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দল। বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করেছে বিএনপি। বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করার পর মুক্তিযুদ্ধের সব চেতনাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছে। যে চেতনার ভিত্তিতে দেশ স্বাধীন হয়েছিল সেই চেতনাকে ধ্বংস করেছেন তিনি।

আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনেও অনুপ্রবেশকারীদের জায়গা হবে না জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনেও অনুপ্রবেশকারীদের আর কোনো জায়গা হবে না। একইসঙ্গে সংগঠনকে গতিশীল করার জন্য ও যেসব জায়গায় সম্মেলন হয়েছে সেই কমিটিগুলো পূর্ণাঙ্গ করার জন্য এবং জেলা-উপজেলায় সম্মেলন হয়নি সেখানে সম্মেলন করার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সাংগঠনিক সম্পাদক এবং দলীয় সম্পাদকদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রেসিডিয়াম সদস্যদেরও বিভাগীয় পর্যায়ে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

অনেক অনলাইন পোর্টাল সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করছে, সেসব অনলাইনও নিবন্ধন পাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে আলোচনা-সমালোচনা থাকবেই, সরকারের সমালোচনা করলে নিবন্ধন পাবে না, এটা নয়। দায়িত্বে থাকলে সমালোচনা হবে, সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করা অপরাধ নয়। অনলাইন নিবন্ধন দেওয়ার ক্ষেত্রে তিনটি সংস্থা যাচাই-বাছাই করছে। তিনটি সংস্থা থেকে যখন অনাপত্তি পাচ্ছি, নিবন্ধনের জন্য শুধু সেগুলোকে ছাড়পত্র দিচ্ছি।