সংবাদ শিরোনাম
সাকিবের নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ায় মাগুরায় আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ | বগুড়ায় ‘এক ঘণ্টার ডিসি’ হলেন পুষ্পা | প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে বগুড়ায় বিক্ষোভ | মির্জাপুরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডে ট্রাক, অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু | যমুনায় ইলিশ ধরার অপরাধে ১৫ জেলের কারাদণ্ড, জব্দকৃত মাছ মাদ্রাসায় বিতরণ | রংপুরে সংঘবদ্ধভাবে কিশোরী ধর্ষণে এএসআইয়ের সম্পৃক্ততা আদালতে স্বীকার | অবশেষে ডিবির এএসআই রাহেনুল গ্রেফতার | ফ্রান্সের ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে মামলা করলেন এরদোয়ান | এরদোয়ানের বিরুদ্ধে ইউরোপীয় ইউনিয়নে ম্যাক্রোঁর নালিশ | এবার ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের ডাক দিলেন জাকির নায়েক |
  • আজ ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মান্দায় ৭ মাসের বাচ্চাকে হত্যার অভিযোগ

১০:৪৪ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, অক্টোবর ৬, ২০২০ রাজশাহী
sisu

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দায় শ্বশুড় শ্বাশুড়ি ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে ৭ মাসের বাচ্চাকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মান্দা উপজেলার কুশুম্বা ইউপি’র কুশুম্বা গ্রামের হুরমতপাড়ায়। এর আগেও দুই বার বাচ্চা নষ্ট করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে উপজেলার কুশুম্বা ইউপি’র কুশুম্বা গ্রামের হুরমতপাড়ার আবদুল খালেক মন্ডলের মেয়ে শারমিন সুলতানা সাথে একই গ্রামের বাওয় পাড়ার আবদুস সামাদ মন্ডলের ছেলে সাদ্দাম হোসেন মন্ডলের পারিবারিকভাবে এক লাখ টাকা দেনমোহরানায় বিয়ে সম্পন্ন হয়। ২০১৪ সালে প্রথমবার এক মেয়ে সন্তান হলে জন্মের প্রথম দিনই দুধ পান করানোর সময় শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

পরে ঢাকায় গিয়ে সাদ্দাম কাঠমিস্ত্রির কাজ শুরু করেন। তার স্ত্রী শারমিন একটি গার্মেন্টসে কাজ নেয়। ২০১৭ সালে জমি বন্ধক নেবার নাম করে তার শারমিন স্বামীর কাছ থেকে এক লাখ টাকা নিয়ে ঐ জমি তার পিতা আবদুল খালেকের নামে লিখে নেয়। এতে দ্বন্দ্ব কলহ দেখা দেয়। টাকা ফেরত দিতে চেয়েও না দিয়ে টালবাহানার আশ্রয় নেয়। ২০১৮ সালে ঢাকা থেকে বাড়িতে ফিরে এলাকায় কাঠমিস্ত্রির কাজ করতে থাকেন।

এর মধ্যে শারমিনের মা ফাইমা বেগমের প্ররোচনায় আবারো দ্বিতীয় বাচ্চা নষ্ট করে ফেলেন। গত কয়েকদিন পূর্বে শারমিনকে তার পরিবার অনাগত সন্তান প্রসবের জন্য তার পিতার বাড়িতে যান। কিন্তু ঘটনার দিন গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত একটার সময় মা ফাইমা বেগমের যোগসাজসে আবারো ৭ মাসের বাচ্চাকে নষ্ট করে হত্যা করেছে।

সাদ্দাম হোসেন অভিযোগ করে বলেন, বিয়ের আট বছরেও তার জীবনে সুখ এলোনা। এত কষ্ট করে সংসার টিকিয়ে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করলেও তার শ্বশুড়, শ্বাশুড়ি ও বউয়ের জন্য সংসারে বিবাদ লেগেই ছিল। তাছাড়া এক লাখ টাকা নেবার পর এ সমস্যা প্রকট হয়ে দেখা দেয়। মেয়েকে সংসার করাবেনা বলে শ্বাশুড়ি তার মেয়ের বাচ্চাকে বারবার নষ্ট করে ফেলছে।

এ ঘটনায় প্রথমে কুশুম্বা ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট লিখিত অভিযোগ করলে বারবার নোটিশ দিলেও আসামীরা সেখানে উপস্থিত হননি। পরে বাধ্য হয়ে তিনি মান্দা থানায় শ্বশুড়, শ্বাশুড়ি ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তিনি এর সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন।

উপপরিদর্শক আতিউর রহমান জানান, অভিযোগ পেয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়ের পরিবার ও প্রতিবেশিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে অভিযোগের সত্যতা মিলেনি। মেয়েটির শারিরীক ও স্বাস্থ্যগত কিছু সমস্যার কারণে বাচ্চা নষ্ট হয়েছে। এর আগেও দুই বার একই কারণে বাচ্চা নষ্ট হয়েছে। হত্যার খবর ও এক লাখ টাকার দাবী ভুয়া।

থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তারেকুর রহমান সরকার জানান, ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। উপপরিদর্শক আতিউর রহমান ও আবদুল বারিককে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ঘটনার সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

puspa বগুড়ায় ‘এক ঘণ্টার ডিসি’ হলেন পুষ্পা

বুধবার, অক্টোবর ২৮, ২০২০