🕓 সংবাদ শিরোনাম

নেতানিয়াহুর বিদায়, ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেটবাড়ছে করোনা রোগী, হিলিতে লকডাউন চায় সচেতন মহলপেকুয়ায় বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে জড়িয়ে দুই কিশোরের মৃত্যুলিখিত অভিযোগ দিলেন পরীমনি, বাসার সামনে পুলিশ মোতায়েনকোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জার কুশপুত্তলিকা দাহরাঙামাটিতে গ্রামপ্রধানকে গুলি করে হত্যা করেছে পাহাড়ি সন্ত্রাসীরাছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাকিরের গাড়িতে হামলার চেষ্টামক্কা-মদিনায় জমজমের পবিত্র পানি বিতরণ করছে রোবটনেইমার নৈপুণ্যে জয় দিয়ে কোপা শুরু ব্রাজিলেরধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা চালায় নাসির, ঘটনা উত্তরা বোট ক্লাবে: পরীমনি

  • আজ সোমবার, ৩১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৪ জুন, ২০২১ ৷

সীমান্তে অচলাবস্থা কাটাতে বৈঠকে বসছেন ভারত-চীনের সেনা কমান্ডাররা

International
❏ সোমবার, অক্টোবর ১২, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আলোচনার রাস্তা থেকে সরবে না ভারত। আর চিন নিজের দখলদারি মনোভাব থেকে নড়বে না। এই পরিস্থিতিতে আজ  সোমবার (১২অক্টোবর) ফের সামরিক স্তরে বৈঠকে বসছে ভারত ও চিন। দুই দেশের শীর্ষ স্থানীয় কমান্ডাররা বৈঠকে বসবেন বলে জানা গেছে। সীমান্তে অচলাবস্থা কাটাতেই এই বৈঠকের সিদ্ধান্ত।

যদিও এর আগে একাধিকবার ভারত ও চিন সামরিক-কূটনৈতিক বৈঠকে বসেছে, তবে কোনও সমাধান মেলেনি। ফলে লাদাখে এখন চোখে চোখ রেখে দাঁড়িয়ে রয়েছে দুই দেশের সেনারা। ভারতের বিদেশমন্ত্রী জয়শংকর জানিয়ে ছিলেন দীর্ঘ কয়েক দশক পর ভারত চিন সীমান্তে এই রকম উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি বেশ জটিল।

সোমবার লাদাখের চুশুলে দুদেশের সেনা কমান্ডাররা সপ্তম রাউন্ড বৈঠকে বসতে চলেছেন। নতুন করে যাতে সীমান্তের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক না হয়ে ওঠে, নতুন করে যাতে সংঘর্ষে না জড়িয়ে পড়ে দুদেশ, সেই বিষয়ে আলোচনা করতেই বৈঠকে বসতে চলেছে ভারত-চিন। ভারত চাইছে চিন নিজের অবস্থান বদলে পিছিয়ে যাক। মে মাসের আগের অবস্থানে চলে যাক চিনা সেনা। কিন্তু সেই প্রস্তাব মেনে নিতে রাজি নয় বেজিং।

এদিকে, ভারত চিন দ্বৈরথের মাঝে ফের ভারতের পাশে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। শনিবার আমেরিকার ন্যাশনাল সিকিওরিটি অ্যাডভাইজার রবার্ট ও ব্রায়েন জানান চিন এমন এক দেশ, যে কখনও শোধরাবে না। তাই ভারত যতই চেষ্টা করুক আলোচনার মাধ্যমে কোনও সমাধান বেরিয়ে আসবে না।

এদিন রবার্ট বলেন চিন দখলদারি চালাতে পছন্দ করে। ভারত চিন সীমান্তের অচলাবস্থা তারই তৈরি করা। সেই পরিস্থিতি থেকে কখনও বেরোতে চাইবে না বেজিং। কারণ গায়ের জোর দেখিয়ে এলাকা দখল করাই চিনের স্বভাব। সেই স্বভাব থেকে পিছিয়ে আসবে না জিংপিনের সরকার। সেই মনোভাব থেকেই ভারত সীমান্তে এলাকা দখলের চেষ্টা করেছিল চিন।