স্যাভলনে ক্ষতিকারক মিথানল, ১ কোটি টাকা জরিমানা

৬:২১ অপরাহ্ন | সোমবার, অক্টোবর ১২, ২০২০ ঢাকা
Gazipur

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর:  স্যাভলনের নিম্নমানের হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি ও মজুতের দায়ে এ পণ্যের প্রস্তুত ও বাজারজাতকারক কোম্পানি এসিআই লিমিটেডকে ১ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার রাতে প্রতিষ্ঠানটির রাজধানীর মিরপুর এবং গাজীপুরে এসিআই কোম্পানীর স্যাভলন ব্রান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ডিপোতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের নিমিত্তে ভ্রাম্যমান অভিযান পরিচালনা করেন র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অভিযানের নেতৃত্ব দেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। অভিযানে র‌্যাব-১ এর গাজীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন এবং সরকারের ঔষধ প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সারোয়ার আলম বলেন, অভিযানে স্যাভলন ইন্সট্যান্ট হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ২৫ মিলিগ্রামের টিউবের ৩টি ব্যাচের পণ্যে মিথানল পাওয়া যায়। নিম্নমানের হ্যান্ড স্যানিটাইজার বাজারজাত ও মজুতের দায়ে প্রতিষ্ঠানটিকে ১ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। কোম্পানিটির তৈরি এসব হ্যান্ড স্যানিটাইজার পরীক্ষা-নিরীক্ষার করে দেখা হবে। স্যাভলনের এই পণ্যটি তৈরি হয়েছে গাজীপুরের কোনাবাড়িতে এসিআইয়ের নিজস্ব কারখানায়।

এ বিষয়ে র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল শাফী উল্লাহ বুলবুল জানান, এর আগে গত ৪ অক্টোবর ২০২০ তারিখ দুপুর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত র‌্যাব-১ গাজীপুর ক্যাম্পের অধিনে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত কর্তৃক এসিআই কোম্পানীর গাজীপুর কারখানায় উৎপাদিত এসিআই’র স্যাভলন ব্রান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজারে বিষাক্ত মিথালন পাওয়ায় জরিমানা সহ কারখানাটি সাময়িক ভাবে বন্ধ রাখা হয়েছিল।

Gazipur

উক্ত কারখানার স্যাভলন ব্রান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজার কেমিষ্ট দ্বারা পরীক্ষা করে সত্যতা পাওয়া গেলেও তা অধিক পরীক্ষার জন্য ঢাকায় ০৩টি ল্যাবে পরীক্ষার জন্য নমুনা পাঠানো হয় এবং চূড়ান্ত কেমিষ্ট রির্পোটে এসিআই স্যাভলন ব্রান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজারে বিষাক্ত মিথালন এর উপস্থিতি পাওয়া যায়। যার প্রেক্ষিতে আজ র‌্যাব-১ রাজধানীর মিরপুর এবং গাজীপুর অবস্থিত এসিআই ডিপোতে ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালনা করে এসিআই স্যাভলন ব্রান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজারে বিষাক্ত মিথালন পাওয়ায় এবং বাজারজাত করার দায়ে উক্ত প্রতিষ্ঠানকে ০১(এক) কোটি টাকা জরিমানা সহ বিষাক্ত মিথালন দ্বারা তৈরী এমন ২০ হাজার পিচ হ্যান্ড স্যানিটাইজার ধ্বংস করা হয়েছে।

এদিকে স্যাভলন হ্যান্ড স্যানিটাইজারের গায়ে আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহল দিয়ে তৈরি লেখা থাকলেও তাতে আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহলের কোন উপাদান পাওয়া যায়নি। বিশেষ করে জীবাণুনাশক হিসেবে মানুষ যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করে তাতে জীবাণুমুক্ত হওয়া দূরের কথা এতে মানুষের শরীরে নানাবিধ ক্ষতি হয়। আর দেশে মিথালন ব্যবহারও সরকারি ভাবে নিষিদ্ধ। কিন্তু এসিআইয়ের কারখানায় বিষাক্ত মিথালন দিয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি হচ্ছিল।

 র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল শাফী উল্লাহ বুলবুল আরো বলেন করোনা মহামারীতে অধিক মুনাফার লোভে এসিআই কোম্পানী বাংলাদেশের সাধারন মানুষের জীবন নিয়ে প্রতারণা করেছে যা কোন ভাবেই কাম্য নয়।