এমপি নিক্সনের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি ফরিদপুর আওয়ামী লীগের

১০:০১ অপরাহ্ন | বুধবার, অক্টোবর ১৪, ২০২০ ঢাকা
nixx

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক ও চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং ভাঙ্গা উপজেলা এসিল্যান্ডকে ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি মুজিবুর চৌধুরী নিক্সন এর অশালীন বক্তব্য এর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগসহ সহযোগী সংগঠনগুলো।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগ নেতারা ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের কার্যালয়ে এসে এ ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেন।

গত ১০ অক্টোবর শনিবার ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন সুষ্ঠু অবাধ ও নিরপেক্ষ করার লক্ষ্যে জেলা প্রশাসন কর্তৃক ১২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়। আর এ বিষয় নিয়ে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য নিক্সন চৌধুরী কর্তৃক ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার, চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভাঙ্গা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এবং নির্বাচনে দায়িত্ব পালনরত সকল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের কে দায়িত্ব পালনে বাধা প্রদানসহ তাঁদের প্রতি যে অকথ্য ভাষায় গালাগালি এবং হুঁমকি প্রদান করেন।

এ কারণে আজ বুধবার দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের সাথে দেখা করতে এসে তাঁর প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেন এবং পাঁশাপাশি উক্ত ঘটনার প্রতি তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করে দোষী ব্যক্তিদের আইনানুগ শাস্তি কামনা করেন। এছাড়াও বিষয়টি সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

এসময় তারা জেলা প্রশাসককে আশ্বস্ত করেন যে, তারা সর্বাবস্থায় জেলা প্রশাসক ও জেলা প্রশাসনের সকল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং সহকারী কমিশনার ভূমি সহ সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড পালনে নিয়োজিত সকলের প্রতি তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

সভায় অভিমত ব্যক্ত করা হয় যে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য নিক্সন চৌধুরীর এহেন অশালীন আচরণ ও হুমকি প্রদান করায় ফরিদপুরের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের এবং ফরিদপুরের রাজনৈতিক ভাবমূর্তি মারাত্মক ভাবে বিনষ্ট হয়েছে। এজন্য তার উপযুক্ত শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।

সভায় উপস্থিত নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান জেলা প্রশাসক অতুল সরকারকে এমপি কর্তৃক ভাষায় প্রকাশের অনুপযোগী এবং একজন সুস্থ মানসিকতা সম্পন্ন সাধারণ ভদ্রলোকের পক্ষে অকল্পনীয় ঘৃণিত ভাষায় যে গালাগালি এবং হুমকি প্রদান করেন তার জন্য তারা অত্যন্ত ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং এর তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন। বিষয়টি তারা সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করেন এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কামনা করেন।

এসময় ফরিদপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাড. সুবল চন্দ্র সাহা, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মাসুদ হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক ঝর্ণা হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুদ্দিন মানু, দপ্তর সম্পাদক অমিমেষ রায়, শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক দিপক মজুমদার, প্রচার সম্পাদক মনির হোসেন, কোতয়ালী থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আঃ রাজ্জাক মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম চৌধুরী, আবু নাইম, সোহেল রেজা বিপ্লব, শওকত আলী জাহিদ, ফরিদপুর জেলার সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল ফয়েজ শাহনেওয়াজ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে দুপুরে এনজিও ফোরামসহ জেলার বিভিন্ন সংগঠন এই ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ ও নিন্দা জ্ঞাপন করেন। তারা উল্লেখ করেন এমন সৎ যোগ্য জেলা প্রশাসককে একজন এমপি কর্তৃক অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ মেনে নেয়া যায় না। তারা এ ঘটনার বিচার দাবি করেন সরকারের কাছে।