• আজ শুক্রবার, ৪ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ১৮ জুন, ২০২১ ৷

পটুয়াখালীতে স্পিডবোট ডুবি : পুলিশসহ নিখোঁজ ৫ জনের লাশ উদ্ধার

নদীতে মরদেহ
❏ শনিবার, অক্টোবর ২৪, ২০২০ দেশের খবর, বরিশাল

সময়ের কণ্ঠস্বর, পটুয়াখালী- পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় স্পিডবোটডুবির ঘটনায় নিখোঁজ পুলিশ কনস্টেবল পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার সকালে আগুনমুখা নদী থেকে এসব মরদেহ উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড, পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন।

এ ঘটনায় নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করা হয়েছে; তারা হলেন- রাঙ্গাবালী থানার কনস্টেবল মহিবুল হক (৪৫)। তিনি বাকেরগঞ্জ থানার জিরাইল গ্রামের মৃত রহমানের ছেলে। কৃষি ব্যাংক রাঙ্গাবালীর বাহেরচর শাখার পরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান (৩৫)।

তিনি পটুয়াখালী থানার আউলিয়াপুর এলাকার আবদুস সালাম হাওলাদারের ছেলে, এনজিও আশার রাঙ্গাবালীর খালগোড়া শাখার ঋণ অফিসার কবির হোসেন (৩০)। তিনি বাউফলের কাশিপুরের লক্ষ্মীপাশা গ্রামের সাজাহান সিকদারের ছেলে, রাঙ্গাবালীতে সড়ক নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কর্মরত পটুয়াখালীর ময়দান মাদ্রাসা এলাকার রহিম হাওলাদারের ছেলে হাসান (৩৫) ও একই কাজে কর্মরত বাউফল থানার জয়গোড়া এলাকার মৃত আলম হাওলাদারের ছেলে ইমরান (৩৪)।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রাঙ্গাঁবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহমেদ জানান, সকাল থেকে লাশগুলো আগুনমূখা নদীর বিভিন্ন স্থানে ভাসমান অবস্থায় দেখে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত লাশ কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট এলাকায় রাখা হয়েছে। শনাক্ত করে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

মৃতদেহ ফুলে উঠলেও এখন পর্যন্ত বিকৃত হয়নি। তাই পরিবারের সদস্যরা মৃতদের সহজেই শনাক্ত করতে পারবে বলেও জানান রাঙ্গাঁবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার জেলার মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন উপজেলা রাঙ্গাঁবালীর কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট থেকে গলাচিপা উপজেলার পানপট্টি লঞ্চঘাট যাওয়ার পথে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কবলে পড়ে যাত্রীবাহী স্পিডবোট। আগুনমুখা নদীতে প্রচণ্ড ঢেউয়ের কবলে পড়ে এর তলা ফেটে ডুবে যায়। এতে ১৭ যাত্রীর মধ্যে ১২ জন উদ্ধার হলেও পাঁচজন যাত্রী নিখোঁজ ছিলেন। আজ তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হলো।