রায়হানের মায়ের অনশন ভাঙালেন মেয়র আরিফ

১০:৩৮ অপরাহ্ন | রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
rayhan

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ পুলিশি নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদের মায়ের অনশন ৬ ঘণ্টা পর ভাঙিয়েছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশেনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। রবিবার (২৫ অক্টোবর) সন্ধ্যার আগে রায়হানের মা সালমা বেগমকে শরবত খাইয়ে অনশন ভাঙান তিনি।

এসময় মেয়র আরিফ রায়হানের মাকে আশ্বাস দিয়ে বলেন, রায়হান হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার দাবিতে আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলবো। তারপরও অভিযুক্তরা গ্রেপ্তার না হলে সিলেটবাসীকে সাথে নিয়ে আমিও বৃহত্তর আন্দোলনে নামবো।

মেয়রের আশ্বাসে অনশন থেকে উঠলেও এসময় রায়হানের মা সালমা বেগম বলেন, আমি আর আশ্বাস শুনতে চাই না। এখন উদ্যোগ দেখতে চাই। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার চাই।

গত ১০ অক্টোবর দিবাগত রাত তিনটার দিকে রায়হানকে কতোয়ালি থানার বন্দরবাজার ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে নির্যাতন করা হয়। নির্যাতনে রায়হান মারা যান। এ ঘটনায় তার স্ত্রী তাহমিনা আক্তার পরদিন হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে মামলা করেন। মামলায় আসামির নাম উল্লেখ করা হয়নি। মামলার পর মহানগর পুলিশের একটি অনুসন্ধান কমিটি তদন্ত করে ওই ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁঞাসহ চারজনকে সাময়িক বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করে।

অন্যদিকে, পুলিশ থেকে মামলাটির তদন্তভার পিবিআইয়ে হস্তান্তর হলে রায়হানের লাশ কবর থেকে তুলে পুনরায় ময়নাতদন্ত করা হয়। নির্যাতনের ঘটনা ধামাচাপা দিতে ফাঁড়ির ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার ভিডিও গায়েব, তথ্য গোপন করাসহ এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তা করার অভিযোগে ২১ অক্টোবর ফাঁড়ির “টু-আইসি” পদে থাকা এসআই হাসান উদ্দিনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

২৫ অক্টোবর সকাল ১১টা থেকে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির সামনে রায়হানের মা সালমা বেগমসহ তার পরিবারের সদস্যরা আমরণ অনশন শুরু করেন। অনশনে সংহতি জানিয়ে তাদের সাথে অনেকেই অংশ নেন। বিকেলে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে সড়ক অবরোধ করে দেয় বিক্ষুব্ধ জনতা। পরে বিকেল পৌনে ৫টার দিকে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এসে অনশন ভাঙান।