‘বাংলাদেশের মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেশি’- ব্রিটিশ হাইকমিশনার

১১:২৪ অপরাহ্ন | রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০২০ ঢাকা
High Commissioner

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার এইচ ই রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন বলেছেন, বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি অনেক ভালো। এদেশের মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি। করোনা ভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্তের হিসেবে সুস্থতার হার অনেক বেশি। এদেশে থেকে আমি করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত হইনি।

রবিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার বাড়ির পূজা মন্ডপ পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন তিনি। এ সময় ডেপুটি হাইকমিশনার জাবেদ প্যাটেল উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক অনন্য উদাহরণ। চমৎকার পরিবেশে শারদীয় দুর্গোৎসব পালনই তার বড় প্রমাণ। এদেশের মানুষ তাদের ধর্মীয় উৎসবটি সুন্দরভাবে অনুশীলন করছে। এদেশের হিন্দু মুসলমান একে অপরকে সহযোগিতা ও সম্প্রীতিতে বসবাস করে।

রোহিঙ্গা সমস্যা সম্পর্কে ব্রিটিশ হাইকমিশনার বলেন, সরকারের কূটনৈতিক তৎপরতায় দ্রুত সময়ের মধ্যে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা তাদের নিজ দেশে (মিয়ানমারে) প্রত্যাবর্তন করতে পারবেন। তাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনের জন্য বাংলাদেশ এবং আন্তর্জাতিক চাপের কারণেই মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের তাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে সম্মত হয়েছেন। অল্প দিনের মধ্যেই রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন শুরু হবে।

দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার পূজার আয়োজন দেখতে হাইকমিশনার এইচ ই রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন ও ডেপুটি হাইকমিশনার জাবেদ প্যাটেল রবিবার সকাল পৌনে ১০টায় মির্জাপুর কুমুদিনী কমপ্লেক্সে পৌঁছান। সেখানে মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. জুবায়ের হোসেন, টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহিনুর রহমান, কুমুদিনী হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. আলী এহসান ও সহকারি মহাব্যবস্থাপক অনিমেষ ভৌমিক তাদের স্বাগত জানান।

কুমুদিনী লাইব্রেরিতে চা চক্র শেষে হাই কমিশনার কুমুদিনী হাসপাতাল, নাসিং স্কুল এন্ড কলেজ ও ভারতেশ্বরী হোমস পরিদর্শন শেষে ডিঙ্গি নৌকায় লৌহজং নদী পার হয়ে রণদা প্রসাদ সাহার পূজা মন্ডপে যান। সেখানে কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজীব প্রসাদ সাহা, পরিচালক শ্রীমতি সাহা, পরিচালক (শিক্ষা) প্রতিভা মুৎসুদ্দি, পরিচালক সম্পা সাহা তাদের স্বাগত জানান।

পরে হাইকমিশনার পায়ে হেটে মির্জাপুর গ্রামের কয়েকটি পূজা মন্ডপও পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি বিভিন্ন মন্ডপের পুজারিদের সঙ্গে কথা বলেন। তার সঙ্গে কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা, আব্দুল হালিম, কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রদিপ কুমার রায় উপস্থিত ছিলেন।

হাইকমিশনার বলেন, দানবীর রনদা প্রসাদ সাহার গ্রাম ঘুরে আমার খুব ভালো লেগেছে। এখানকার মানুষ অত্যন্ত চমৎকারভাবে দুর্গা পূজা পালন করছে।