• আজ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফ্রান্সের ইসলামবিরোধী কর্মকাণ্ডে ‍মুসলিমবিশ্বে প্রতিবাদের ঝড়

⏱ ১১:৫২ অপরাহ্ন | রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০২০ 📂 আন্তর্জাতিক
france

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ কর্তৃক মহানবী মুহাম্মদ (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ থেকে বিরত না থাকার ঘোষণায় তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন অব্যাহত রয়েছে আরবসহ সমগ্র মুসলিমবিশ্বে। জোরদার হচ্ছে ফরাসী পণ্য বয়কটের আহ্বান।

বুধবার ম্যাক্রোঁ বলেন, স্বাধীন মত প্রকাশের নীতি অনুযায়ী মহানবী মুহাম্মদ (স.) কে নিয়ে অসম্মানজনক কার্টুন প্রকাশ তিনি বন্ধ করতে পারবেন না। তার এ বিবৃতির পর মুসলিম বিশ্বে তীব্র ক্ষোভ এবং প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়ে।

মুসলিম বিশ্বের বৃহত্তম সংগঠন অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি) এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘মুসলিমদের অনুভূতিতে আঘাত করে ফ্রান্স কর্তৃক ধর্মীয় প্রতীকের ধারাবাহিক অবমাননার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে ওআইসি।’

এদিকে লেবাননের দারুল ইফতার মহাসচিব আমিন কুরদি এক বিবৃতিতে জানান, ‘মহানবী মুহাম্মদ (সা.)-এর প্রতি ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁর কটূক্তি মানুষের মধ্যে ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়াবে। স্বাধীনতার নামে মহানবী মুহাম্মদ (সা.)-এর অবমাননা জাতি-গোষ্ঠীর মধ্যে বিদ্বেষ ও ধর্মীয় সংঘাত তৈরি করবে।’

ফ্রান্সে ক্রমবর্ধমান বিদ্বেষ নিয়ে কুয়েতেও নিন্দার ঝড় উঠেছে। মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন কুয়েতের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির প্রধান মারজুক আল গানেম। এক সংবাদ সম্মেলনে কূটনৈতিক তৎপরতার মাধ্যমে ইসলামসহ বিশ্বের সব ধর্ম ও বিশ্বাসের অবমাননা বন্ধে জরুরি উদ্যোগ গ্রহণের দাবি জানান তিনি।

স্বাধীনতার নামে চরমপন্থা প্রতিরোধে মুসলিম বিশ্বের কূটনৈতিক তৎপরতা বৃদ্ধির আহ্বান করেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আহমদ আল ফজল। মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ২৫-২৯ অক্টোবর ফ্রান্স-কাতার সাংস্কৃতিক সপ্তাহ পালন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণা করেছে কাতার বিশ্ববিদ্যালয়।

তা ছাড়া ফ্রান্সের সব ধরনের পণ্য বর্জন শুরু করেছে কাতারের শীর্ষস্থানীয় কম্পানি আল মিরাহ কনজিউমার গুডস। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ থামবে না বলে ঘোষণার পরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফরাসি পণ্য বয়কটের ডাক শুরু হয়। এরপর কাতার ও কুয়েতসহ আরব ও মুসলিম বিশ্বের বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের উৎপন্ন পণ্য বর্জন শুরু করেছে।

উল্লেখ্য গেলো কয়েক সপ্তাহ ধরে ইসলাম এবং মুসলমানদের আক্রমণ করে যাচ্ছেন ম্যাক্রোঁ। মুসলমানদের বিচ্ছিন্নতাবাদী আখ্যা দিয়েছেন। ইসলামকে সারাবিশ্বের জন্য সংকট বলেও অভিহিত করেন ফরাসী প্রেসিডেন্ট।