🕓 সংবাদ শিরোনাম

এসএসসি-এইচএসসিতে বিকল্প মূল্যায়ন নিয়েও কাজ চলছে: শিক্ষামন্ত্রীটাঙ্গাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর এক নারীর ধর্ষকদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধনপরীমনি ভাগ্যবতী, ত্ব-হা’র পরিবারের সেই সৌভাগ্য হয়নি: সংসদে রুমিন ফারহানাচট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ১৫৮ জনযাত্রাবাড়ী থেকে হেফাজত নেতা আজহারুল ইসলাম গ্রেফতারদালাল নির্মূলে মিটফোর্ড হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযান, আটক ২৩সাইকেল চালিয়ে পদ্মা পাড়ি, পারেন প্লেন তৈরি করতেও!ত্রিশালের সাবেক এমপি এমএ হান্নান আর নেইনগদ টাকা ও ইয়াবা তৈরীর বিপুল পরিমাণ উপাদানসহ ৩ রোহিঙ্গা আটকস্বামীর খোঁজে প্রধানমন্ত্রীকে ‘মা’ ডেকে আবু ত্ব-হার স্ত্রীর চিঠি

  • আজ মঙ্গলবার, ১ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ১৫ জুন, ২০২১ ৷

তুরস্কে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত ৬, আহত দুই শতাধিক

turky
❏ শুক্রবার, অক্টোবর ৩০, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ তুরস্কের এজিয়ান উপকূলে শক্তিশালী ভূমিকম্পে অন্তত ৬ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ২২০ জনের বেশি। ‍একই ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে গ্রিসও, সেখানেও বেশ কিছু বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানিয়েছে, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল তুরস্কের ইজমির প্রদেশে। পার্শ্ববর্তী অ্যাথেন্স এবং ইস্তাম্বুলেও কম্পন অনুভূত হয়েছে।

ভূমিকম্পের মাত্রা ৬ দশমিক ৬ ছিল বলে জানিয়েছে আঙ্কারা। ইজমির শহরের অন্তত ২০টি বহুতল ভবন ধসে পড়েছে।

সমন্বিত পদক্ষেপের মাধ্যমে পরিস্থিতি মোকাবিলায় সংশ্লিষ্ট সরকারি সব প্রতিষ্ঠান কাজ করেছ বলে জানিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান। বলেন, ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত আমাদের নাগরিকদের সঙ্গে আমরা আছি। সম্ভাব্য সবকিছু করার জন্য সমবেতভাবে সবাই অংশ নিয়েছে।

গ্রিসের সরকারি টেলিভিশনে খবরে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পের পর পূর্বাঞ্চলীয় ইজিয়ান সাগরের সামোস দ্বীপে ক্ষুদে-সুনামির সৃষ্টি হয়েছে। এতে সামোসের বেশ কিছু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সোয়লু এক টুইটে বলেছেন, ইজমিরের বায়রাকলি এবং বোর্নোভা জেলায় অন্তত ছয়টি ভবন ধসে পড়েছে। এছাড়া এই ভূমিকম্পে উসাক, দেনিজলি, মনিসা, বালিকেসির, আয়দিন এবং মুগলা প্রদেশেও হালকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য গ্রিস এবং তুরস্ক বিশ্বের অন্যতম ভূমিকম্প সক্রিয় প্রবণ অঞ্চলে অবস্থিত দুটি দেশ। প্রায়ই এই অঞ্চলে শক্তিশালী এবং মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। ১৯৯৯ সালে তুরস্কের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে রিখটার স্কেলে ৭ দশমিক ৪ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পে অন্তত ১৭ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটে।