🕓 সংবাদ শিরোনাম

মুজিব আদর্শে বিশ্বাসীরা ৩টি করে গাছ লাগান: প্রধানমন্ত্রীমাগুরায় যুবককে হত্যার ৯ দিন পর মাথা ও পা উদ্ধার, গ্রেফতার ১টাঙ্গাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নারী ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ২জামায়াত-হেফাজতের তেঁতুল হুজুররা আলেম নয়: ইনুনাসির ইউ মাহমুদ ‘ভালো লোক’: সংসদে এমপি চুন্নুনোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় বছরের সর্বোচ্চ করোনা শনাক্তপরীমনিকে ডিবি কার্যালয়ে ডেকেছে পুলিশকোনো প্রকৃত আলেমকে গ্রেফতার করা হয়নি : সংসদে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীএসএসসি-এইচএসসিতে বিকল্প মূল্যায়ন নিয়েও কাজ চলছে: শিক্ষামন্ত্রীটাঙ্গাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর এক নারীর ধর্ষকদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন

  • আজ মঙ্গলবার, ১ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ১৫ জুন, ২০২১ ৷

সরকারি দলকে সর্বময় ক্ষমতা দিতে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান আইন: বিএনপি

bnp
❏ সোমবার, নভেম্বর ২, ২০২০ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ নির্বাচন কমিশনের (ইসি) প্রস্তাবিত স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান আইন-২০২০ সরকারি দলকে সর্বময় ক্ষমতা দিতে করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

সোমবার (২ নভেম্বর) বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রস্তাবিত এই আইন নিয়ে দলের অবস্থান ও মতামত তুলে ধরেন বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারি দলকে একক কর্তৃত্ব প্রদানের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনকে ‘ঠুঁটো জগন্নাথ’ বানানোর উদ্দেশে এই আইন করা হচ্ছে। উপনির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহ ও পরিবেশনে গণমাধ্যমের আগ্রহ না থাকায় অনিয়মের ঘটনা বেশি ঘটছে বলেও মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

পরে প্রস্তাবিত স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন নিয়ে দলীয় মহাসচিব স্বাক্ষরিত লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন আগে থেকেই আছে, যে আইনে নির্বাচন হয়ে আসছে। এই আইন নতুন করে করার কোনো দরকার নেই।

ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ ও পৌরসভা নির্বাচন সংক্রান্ত আইন একীভূত করার প্রক্রিয়ার বিরোধিতা করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, সরকারি দলের সুবিধা হয়, বেছে বেছে এমন বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে।

এই প্রস্তাবিত আইনে ফেরারি আসামির নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ রাখা হয়নি জানিয়ে তিনি বলেন, এর ফলে রাজনৈতিক মামলায় ফেরারি হয়ে অনেকেই প্রার্থী হতে পারবেন না।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে রাজনৈতিক মনোনয়নের বিরোধিতা করে নজরুল বলেন, এ কারণে রাজনৈতিক সহিংসতা ও বিদ্বেষ গ্রাম পর্যায়ে চলে গেছে। এই বিধান বাতিলের দাবি জানান তিনি।

নির্বাচন কমিশনের প্রস্তাবিত স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের আইনের বিষয়ে পর্যালোচনা করতে বিএনপি দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানকে আহ্বায়ক করে নয় সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে।

এ কমিটি মতামত ও সুপারিশ সম্বলিত প্রতিবেদন প্রণয়ন করে যা গত ৩১ অক্টোবরের মধ্যে জাতীয় স্থায়ী কমিটির সভায় অনুমোদন পায়। পরে দলের যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন ও আইন বিষয়ক সম্পাদক কায়সার কামাল রোববার (১ নভেম্বর) এসব সুপারিশসহ দলের মহাসচিবের একটি চিঠি নির্বাচন কমিশনের কাছে হস্তান্তর করেন।