মেঘনায় ইলিশ ধরায় ১৭ জেলে আটক: ২ লাখ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ

২:৩৯ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, নভেম্বর ৩, ২০২০ চট্টগ্রাম, দেশের খবর
আটক

চাঁদপুর প্রতিনিধি- নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চাঁদপুরের মেঘনা নদীতে জাল ফেলায় দুটি ইঞ্জিন চালিত কাঠের নৌকা ,২ লক্ষ মিটার কারেন্ট জাল এবং ৫০ কেজি ইলিশ মাছ জব্দ সহ আরও ১৭ জন অসাধু জেলেকে আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চাঁদপুর কোস্টগার্ড স্টেশন কমান্ডার এনায়েত উল্লাহর নেতৃত্বে কোস্টগার্ড আউটপোস্ট হাইমচর, কোস্টগার্ড আউটপোস্ট ভেদরগঞ্জের এবং মৎস্য অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগেে চাঁদপুর মোহনা, আনন্দবাজার, লালপুর, আমিরাবাদ, জহিরাবাদসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযানকালে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- মোহনপুরের মনির হোসেন (৩০),পিতা- রুস্তম আলী বেপারী,বিল্লাল হোসেন (১৮), পিতা- মোহাম্মদ আলী বেপারী,মোহাম্মদ আবু তাহের (৪০), পিতা- মোহাম্মদ আলী বেপারী, সোহেল রানা (১৮),পিতা- সিদ্দিক আলী বেপারী,মনির সরদার (৪০), পিতা- ইউনুস সরদার,মামুন মিয়া (৩০), পিতা - মোঃ হাবিব বেপারী, মোহাম্মদ ইব্রাহিম (১৬),পিতা - টুনু সরকার, মোঃ আলাউদ্দিন (১৮), পিতা- ইসমাইল গাজী, মোহাম্মদ শরীফ(২০) পিতা - মতিন পাটোয়ারী, রফিক মুন্সি (১৮) পিতা - মৃত সবুজ মুন্সি, রনি মিয়া (২৫), পিতা - মোঃ নান্না মিয়া, জোবায়ের মিজি (১৮), পিতাঃ মোঃ সিরাজ মিয়া এই ১২ জন আসামিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক অবৈধ ভাবে মাছ আহরণের দায়ে তিন হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

এবং আনন্দবাজারের জেলে মোঃ আরিফ হোসেন (৩১), পিতা মোঃ মনির হোসেন,রাসেল (২০), পিতা- নাসির খান, সোহেল (১৮), পিতা - জজ মিয়া বেপারী, ফরিদ মিয়া (৩৫) পিতা - আলী বেপারী, রানা বেপারী (২৪), পিতা - জজ মিয়া বেপারী এই ০৫ জন আসামিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক অবৈধভাবে মাছ আহরণ এবং সশস্ত্র বাহিনীর উপর আক্রমনের চেস্টা করার দায়ে ১ বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

এছাড়া জব্দকৃত দুটি ইঞ্জিন চালিত কাঠের নৌকা মৎস্য কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর, মাছ গরিব, দুঃস্তদের মাঝে বিতরণসহ সকলের উপস্থিতিতে কারেন্টজাল সমূহ পুড়িয়ে ফেলা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার এনায়েত উল্লাহ, বিএন, আউটপোস্ট হাইমচরের কন্টিজেন্ট কমান্ডার মাস্টার চীফ পেটি অফিসার ইসহাক এবং আউটপোস্ট ভেদরগঞ্জের কন্টিজেন্ট কমান্ডার চিফ পেটি অফিসার সানোয়ার।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ডালিম চৌধুরী এবং সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ ফারুক আহমেদ প্রমূখ।

উল্লেখ্য, ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন চাঁদপুরের মেঘনা নদীতে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মৎস্য বিভাগ।