সংবাদ শিরোনাম

হাসিনা-মোদির ভার্চুয়াল বৈঠকে হতে পারে ৪ চুক্তি | যারা ভাস্কর্যের পক্ষাবলম্বন করছেন তারা মুর্খ ও জ্ঞানপাপী: ইসলামী আন্দোলন | ভারত, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশকে একীভূত করা উচিত: ভারতীয় মন্ত্রী | শান্তিকালীন পদক পেলেন ১২৩ সেনা সদস্য | একই রোল নিয়ে পরের ক্লাসে উঠবে প্রাথমিক শিক্ষার্থীরা | দুই মুসলিম বিজ্ঞানী দম্পতির হাত দিয়ে করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কার | করোনা প্রতিরোধে অসহায় মানুষের পাশে ইউপি চেয়ারম্যান তোফা | কাউখালীর সন্ধ্যার ভাঙনে আমরাজুড়ী বাজার বিপন্ন, ভাঙনরোধে নদী তীরে অবস্থান কর্মসূচি | টাঙ্গাইলে সুইসাইড নোটে ক্ষমা চেয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা | দে‌শে ‘গণতন্ত্র’ নয়, ‘হাসিনাতন্ত্র’ চলছে: গয়েশ্বর |

  • আজ ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

যশোরে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধুকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা

৫:৫৭ অপরাহ্ন | বুধবার, নভেম্বর ৪, ২০২০ খুলনা
hotta

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ যশোরের ঝিকরগাছায় ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধুকে (১৯) আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ নিহতের স্বামী প্রদিপ (২৪) কে আটক করেছে। মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে ঝিকরগাছা উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের কাউনিয়া দাস পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত পুতুল রানীকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার সময় বুধবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে তিনি মারা যান। মৃত্যুর আগে নিহত পুতুল বলে গেছেন স্বামী প্রদীপ তার শরীরে আগুন দিয়েছিলেন। প্রদীপও আগুনে সামান্য দগ্ধ হয়েছেন। তিনি পুলিশি প্রহরায় যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। পুলিশ তাকে আটক করেছেন।

প্রতিবেশী রফিউদ্দিন জানিয়েছেন, রাতে প্রদীপ ও তার স্ত্রী পুতুলের ঝগড়া হচ্ছিল। তাদের চিৎকার শুনে বাইরে এসে দেখেন ঘরের মধ্যে আগুন জ্বলছে। এসময় প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে ঝিকরগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্যে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। ঝগড়ার কারণে প্রদীপ তার স্ত্রীর শরীরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে তাদের অভিযোগ।

যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডাক্তার আহমেদ তারেক শামস চৌধুরী জানান, রাত সাড়ে ৩টার দিকে দগ্ধ দম্পতিকে হাসপাতালে আনা হয়। পুতুলের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে ঢাকায় রেফার করা হয়। প্রদীপের দু’টি হাত, চোয়াল ও মাথার চুল পুড়ে গেছে। তাকে সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

নিহত পুতুলের কাকা সঞ্জয় কুমার জানান, ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রথমে পুতুলকে যমেক হাসপাতালে এবং এখান থেকে ঢাকায় রেফার করা হলে যাওয়ার পথে গোপালগঞ্জের কাছে পুতুল মারা যান।

সঞ্জয় দাবি করেন, মৃত্যুর আগে পুতুল তাকে বিস্তারিত বলে গেছেন। পুতুল জানিয়েছেন, রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে প্রদীপ তাকে বলেন, ‘তুই আমাকে কত ভালোবাসিস তা গায়ে আগুন দিয়ে দেখা। এক পর্যায়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন পুতুল। সেই আগুনে পুড়ে তার মৃত্যু হয়’।

ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, গৃহবধু হত্যার ঘটনায় স্বামী প্রদীপকে আটক করা হয়েছে। প্রদীপকে আটক দেখিয়ে পুলিশ পাহারায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে হাসপাতালে। এ ঘটনায় এখনো মামলা করা হবে।