আমরা জয়ী হবোই, কেউ গণতন্ত্র ছিনিয়ে নিতে পারবে না: বাইডেন

১:৫৮ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ৫, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফলাফল এখনো প্রকাশ হয়নি। তবে ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জো বাইডেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প থেকে এগিয়ে আছেন। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফলাফল প্রকাশিত না হলেও নির্বাচন পরবর্তী ভাষণ দিয়েছেন বাইডেন। ভাষণে তিনি তার জয়কে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জয় হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন বলেন, অনেক লড়াইয়ে অর্জিত মার্কিন গণতন্ত্র কেউ ছিনিয়ে নিতে পারবে না।

বৃহস্পতিবার নিজ রাজ্য ডেলাওয়ারে ডেমোক্র্যাট দলীয় ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে সঙ্গে নিয়ে সমর্থকদের উদ্দেশে এক ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

এদিকে, এ দুই রাজ্যে হারের পর রিপাবলিকান শিবির পুনরায় ভোট গণনার দাবিতে অন্তত তিনটি রাজ্যে মা.মলা করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে জয় পাওয়ায় হোয়াইট হাউসে যাওয়ার জন্য দরকার ২৭০ ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের কাছাকাছি পৌঁছে গেছেন জো বাইডেন। পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে রাজনীতি করে আসা জো বাইডেন এখন পর্যন্ত ২৬৪ ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়েছেন। অন্যদিকে, রিপাবলিকান দলীয় ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪টি।

২০১৬ সালে প্রথম বারের মতো হোয়াইট হাউসের মসনদে বসা ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য দ্বিতীয় মেয়াদে দেশটির ক্ষমতায় আসার পথ প্রায় ফুরিয়ে এসেছে। তবে ভোট গণনা এখনও শেষ না হলেও নিজেকে জয়ী দাবি করেছেন তিনি।

একই সঙ্গে ডেমোক্র্যাট শিবিরের বিরুদ্ধে ভোট চুরির অভিযোগ এনে সুপ্রিম কোর্টে আইনী লড়াইয়ের হুমকি দিয়েছেন। ইতোমধ্যে জর্জিয়াসহ তিনটি রাজ্যে মামলাও করেছে ট্রাম্প শিবির।

নিজ রাজ্য ডেলাওয়ারে রানিং মেইট কমলা হ্যারিসকে সঙ্গে সমর্থকদের উদ্দেশে জো বাইডেন বলেন, এটা পরিষ্কার যে, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রয়োজনীয় ২৭০ ইলেকটোরাল ভোটের জন্য তিনি পর্যাপ্তসংখ্যক রাজ্যে জয় পেয়েছেন।

তিনি বলেন, আমি এখানে জয়ের ঘোষণা দিতে আসিনি। তবে এটা জানাতে এসেছি যে, যখন গণনা শেষ হবে আমাদের বিশ্বাস আমরা বিজয়ী হবো।

জয়ের বন্দরের কাছাকাছি পৌঁছে যাওয়া জো বাইডেন বলেন, অবশ্যই প্রত্যেকটি ভোট গণনা হবে। কেউ আমাদের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র ছিনিয়ে নিতে পারবে না। এখনও পারবে না, ভবিষ্যতেও পারবে না। আমেরিকা অনেক দূর এগিয়েছে। আমেরিকা অনেক যু.দ্ধে লড়েছে। এখন পর্যন্ত আমেরিকা অনেক কিছুই সহ্য করেছে।

নির্বাচনে হেরে গেলে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়ার বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা কয়েক মাস আগে থেকেই দিয়ে আসছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই ঘোষণার মতোই- কিছু রাজ্যে হেরে যাওয়ার পর ডেমোক্র্যাট শিবির ভোট চুরির চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

মিশিগান এবং পেনসিলভানিয়ায় আইনী লড়াই চালিয়ে ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়ার সুযোগ জিঁইয়ে রাখার চেষ্টা করছে তার নির্বাচনী প্রচার শিবির। এই দুই রাজ্যে ভোট গণনা বন্ধ এবং উইসকনসিনে পুনরায় গণনার দাবি তুলেছে রিপাবলিকানরা।