সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

খুলনায় মদ ভেবে বিষাক্ত রাসায়নিক পানে ২ জনের মৃত্যু

৭:৫৯ অপরাহ্ন | শুক্রবার, নভেম্বর ৬, ২০২০ খুলনা
khulna

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ খুলনায় বিষাক্ত রাসায়নিক পানে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি একজন। শুক্রবার সকালে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একজনের মৃত্যু হয়। এর আগে রাতে আরো একজন প্রাণ হারান।

নিহতরা হলেন- দৌলতপুরের পাবলা করিগর পাড়ার আবু তালেবের ছেলে পারভেজ বিশ্বাস (২৯) ও একই এলাকার রেজাউল করিমের ছেলে রফিকুল বিশ্বাস (৪০)।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার খুলনা সরকারী মহিলা কলেজের বিজ্ঞান ভবনের ল্যাবে সংস্কার কাজের সময় এ্যালকোহল ভেবে রাসায়নিক দ্রব্য চুরি করেছিল পারভেজ নামের এক শ্রমিক। পরে রাতে পাবলা কারিগরপাড়ায় পারভেজের বাসার পুকুরের কাছে বসে তারা তিন জন মিলে সেই রাসায়নিক পান করে।

এতে তারা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে ওই তিন জনকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। এরপর রাতে একজনকে ও শুক্রবার সকালে একজনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। অপরজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মৃত দুই শ্রমিক নগরীর দৌলতপুরের পাবলা এলাকার বাসিন্দা। একই এলাকার শামীম নামের আর এক শ্রমিক হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তারা সকলে পেশায় রং মিস্ত্রী।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. অনল রায় বলেন, 'অসুস্থ শামীমের অবস্থা মোটামুটি স্টেবল। তবে এগুলো তো শুরুতে বোঝা যায় না। শামীমের এখন জ্ঞান আছে, সে কথা বলছে। আমরা তার কিছু বায়োকেমিক্যাল পরীক্ষা করাতে দিয়েছি। রিপোর্টগুলো হাতে পেলে বুঝা যাবে তার অবস্থা কতটা গুরুতর।'

তবে কলেজের ল্যাবে ঐ তিন শ্রমিক সংস্থার কাজ করলেও কোন রাসায়নিক দ্রব্য চুরি হয়নি বলে দাবি অধ্যক্ষের।

খুলনা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ এটিএম জাকির হোসেন বলেন, 'আমাদের ল্যাবের ভিতর থেকে একটা পাতা নিয়েও তারা বের হতে পারবে না। বের হওয়ার সময় সার্চ করা হয়। আমরা দেখলাম তারা যে তিনজন কাজ করে তারা চলে গেল বের হয়ে। যাওয়ার সময় তারা খালি হাতেই গেছে। আমাদের ভিডিও ফুটেজ আছে।'

এ ঘটনায় সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।