ঘুষ দিয়ে ক্ষমতা হারালেন পেরুর প্রেসিডেন্ট

৩:২৬ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, নভেম্বর ১০, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ এবার পার্লামেন্টে অভিশংসিত হয়েছেন পেরুর প্রেসিডেন্ট মার্টিন ভিজকারা। ঘুষের বিনিময়ে সরকারি কাজ নির্দিষ্ট একটি সংস্থাকে দেওয়ার অভিযোগে তাকে অভিশংসিত করা হয়।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) পেরুর এ প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করার পক্ষে পার্লামেন্টের সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যরা ভোট দেন। সূত্র: বিবিসি ও গার্ডিয়ান

গণমাধ্যমকে ভিজকারা বলেছেন, তিনি সংসদ সদস্যদের ভোটের রায় মেনে নেবেন এবং এর বিরুদ্ধে কোনো ধরনের আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন না। শিগগিরই তিনি প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ ছেড়ে দেবেন। প্রেসিডেন্ট ভিজকারার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০২১ সালের জুলাইয়ে।

পেরুর দক্ষিণের মোকুগুয়া অঞ্চলের গভর্নর থাকাকালীন ৫৭ বছর বয়সী ভিজকারা প্রায় ৬ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার ঘুষের বিনিময়ে একটি সংস্থাকে সরকারি কাজ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। তবে বারবারই তিনি এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিলেন।

পার্লামেন্টে ভোটাভুটির আগে অভিশংসনের যেকোনো পদক্ষেপ দেশকে অর্থনৈতিক অস্থিতিশীলতার মধ্যে ফেলে দিতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ভিজকারা। চলমান মহামারি করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত দক্ষিণ আমেরিকার এ দেশের অর্থনীতি ইতোমধ্যে তীব্র মন্দার কবলে পড়েছে।

কিন্তু সোমবার দেশটির পার্লামেন্টের ১০৫ সদস্য প্রেসিডেন্ট ভিজকারাকে অভিশংসনের পক্ষে ভোট দেন। এছাড়া বিপক্ষে ভোট দেন পার্লামেন্টের মাত্র ১৯ জন সদস্য। ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকেন চারজন।