সীতাকুণ্ড থেকে অপহৃত যুবদল নেতার বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

লাশ উদ্ধার
❏ শনিবার, নভেম্বর ১৪, ২০২০ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি- অপহরণের তিনদিন পর সীতাকুণ্ডে এক যুবদল নেতার বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার (১৪ নভেম্বর) দুপুর আড়াইটার সময় উপজেলার ১নং সৈয়দপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ বসতনগর এলাকার সাগর উপকূল থেকে মোহাম্মদ জামশেদ (৩৫) নামের উক্ত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করে পুলিশ।

জামশেদ উপজেলার মুরাদপুরের দেলীপাড়া এলাকার নুরুজ্জামান এর পুত্র। সে মুরাদপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক বলে জানিয়েছেন উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক মোঃ জহুরুল আলম জহুর।

উল্লেখ যে, গত ১১ নভেম্বর রাতে কয়েকজন যুবক ইউনিয়ন যুবদল নেতা জামশেদকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার কোন খোঁজ পাচ্ছিলোনা পরিবার। ১২ ই নভেম্বর জামসেদের স্ত্রী বাদী হয়ে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো দশ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ এ ঘটনায় মোঃ সাইফুল ও জুয়েল নামে দুইজনকে গ্রেফতার করে।

এদিকে অপহৃত স্বামীর সন্ধান চেয়ে শনিবার দুপুরে সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবে সংবাদ সন্মেলন করে জামসেদের স্ত্রী রুবি আক্তার। সংবাদ সম্মেলন শেষ হওয়ার পর পর খবর আসে সীতাকুণ্ডের বশতনগর এলাকার একটি অজ্ঞাত লাশের সন্ধান পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে মডেল থানা পুলিশ এবং জামশেদের ভাই নাছির সেখানে গিয়ে লাশটি তার ভাইয়ের বলে শনাক্ত করে।

নিহতের ছোট ভাই মোহাম্মদ নাছির বলেন, আমার ভাই বিএনপির রাজনীতি সাথে জড়িত ছিলো। বর্তমান সরকার দলের ক্যাডাররা আমার ভাইয়ের উপর বেশ কিছুদিন আগে একবার হামলা চালায়। সর্বশেষ গত ১১ তারিখ রাতে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে করে বস্তাবন্দী করে সাগরে ফেলে দেয়। আমি আমার ভাইয়ের হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ ব্যাপারে সীতাকুণ্ড মডেল থানার এসআই হারুন বলেন, সাগর উপকুল থেকে আমরা একটা বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করি। তিনদিন আগে নিখোঁজ হওয়া জামসেদ নামের এক ব্যক্তির লাশ বলে তার ভাই নিশ্চিত করেন। লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করি।