🕓 সংবাদ শিরোনাম

মুজিব আদর্শে বিশ্বাসীরা ৩টি করে গাছ লাগান: প্রধানমন্ত্রীমাগুরায় যুবককে হত্যার ৯ দিন পর মাথা ও পা উদ্ধার, গ্রেফতার ১টাঙ্গাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নারী ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ২জামায়াত-হেফাজতের তেঁতুল হুজুররা আলেম নয়: ইনুনাসির ইউ মাহমুদ ‘ভালো লোক’: সংসদে এমপি চুন্নুনোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় বছরের সর্বোচ্চ করোনা শনাক্তপরীমনিকে ডিবি কার্যালয়ে ডেকেছে পুলিশকোনো প্রকৃত আলেমকে গ্রেফতার করা হয়নি : সংসদে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীএসএসসি-এইচএসসিতে বিকল্প মূল্যায়ন নিয়েও কাজ চলছে: শিক্ষামন্ত্রীটাঙ্গাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর এক নারীর ধর্ষকদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন

  • আজ মঙ্গলবার, ১ আষাঢ়, ১৪২৮ ৷ ১৫ জুন, ২০২১ ৷

রংপুরে পুলিশের হামলায় সংবাদকর্মী আহত

Rangpur news
❏ বুধবার, নভেম্বর ১৮, ২০২০ রংপুর

সাইফুল ইসলাম মুকুল,রংপুর প্রতিনিধি: রংপুর সিটি কর্পোরেশনের উচ্ছেদ অভিযানের সংবাদ সংগ্রহকালে এক সংবাদ কর্মীর ওপর হামলা চালিয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার বিকেলের এ ঘটনায় আহত ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন লিমন রহমানকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ বাহিনী, জেলা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। হামলার ঘটনায় জড়িত থাকায় এএসআই সায়েমকে প্রত্যাহার করেছে মেট্রো পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে পুলিশের সাথে সাংবাদিকদের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এরই এক পর্যায়ে মেট্রো পুলিশের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন লিমন রহমানের ওপর সংঘবদ্ধভাবে চড়াও হয়ে লাঠিপেটা, লাথি দেয়াসহ আঘাত করতে থাকেন।

পরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাহমুদ হাসান মৃধা পুলিশ সদস্যদের সরিয়ে দিয়ে ওই সাংবাদিককে রক্ষা করেন। এরপর সাংবাদিকরা লিমনকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় সাংবাদিকরা হামলায় দায়ী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশসহ দুই ঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখেন। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অনুরোধে সড়ক অবরোধ তুলে নেন তারা।

এ ব্যাপারে টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (টিসিএ), রংপুরের সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হক সুমন বলেন, দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও শাস্তি শৃঙ্খলায় পুলিশের যে গৌরবজ্জ্বল ভূমিকা রয়েছে তা এই ধরনের কর্মকাণ্ডের জন্য ম্লান হচ্ছে। ওই পুলিশ সদস্যদের উপযুক্ত বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার আলতাব হোসেন বলেন, এ ঘটনায় তিনটি পৃথক তদন্ত কমিটি হয়েছে। ৭২ ঘন্টার মধ্যে পুলিশ বাহিনীর পক্ষ থেকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে। দোষী পুলিশ সদস্যরা অবশ্যই শাস্তির আওতায় আসবে।