চাঁদপুরে  চুরি-ডাকাতি যেন নিত্যদিনের খবর হয়ে দাঁড়িয়েছে!

৬:৪১ পূর্বাহ্ন | শনিবার, নভেম্বর ২১, ২০২০ চট্টগ্রাম
Chadpur news

চাঁদপুর প্রতিনিধি:  চাঁদপুরের মতলব উত্তরে অস্বাভাবিক হারে বেড়েই চলেছে চুরি-ডাকাতির মতো ঘটনা। আজ এক গ্রামে, কাল আরেক গ্রামে এমনভাবে চুরি-ডাকাতির মতো ঘটনা যেন নিত্যদিনের খবর হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ যেন চোর-ডাকাতদলের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হতে চলেছে। চোখের আড়াল হলেই দিন দুপুরে চোরদের হাত ধরে উধাও হয়ে যাচ্ছে মূল্যবান গুরুত্বপূর্ণ সব জিনিসপত্র। আর রাত হলেই শুরু হয় জিম্মি করে ডাকাতি।

শুধু তাই নয়, সিধ কেটে চুরির ঘটনা, মোটর-বাইক, ইজিবাইক,অটোরিকশা সহ নানান ধরনের মহামূল্যবান জিনিসপত্র চুরি-ডাকাতির ঘটনায় যেন অভয়ারণ্যে তৈরি হয়েছে উপজেলাটি। দিন দিন বেড়ে চলা চোর-ডাকাতদলের এমন তাণ্ডবলীলায় পুলিশ যেন অসহায় ভূমিকায়।

গত বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) নারায়নগঞ্জ থেকে রাত সোয়া ৯ টায় মতলবের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা এমভি মকবুল-২ লঞ্চে রাত অনুমানিক পৌনে ১১ টার দিকে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এসময় অস্রের মুখে চালককে জিম্মি করে ডাকাতেরা মকবুল লঞ্চের প্রায় শতাধিক যাত্রীদের সর্বস্ব লুটে নেয় বলে জানান লঞ্চে থাকা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের যাত্রীরা। হামলায় বেশ কয়েকজন আহতের খবর পাওয়া গেছে।

জানা যায়, লঞ্চটি নির্দিষ্ট সময়ের ১৫ মিনিট পরে গজারিয়া ঘাটে ভীড়ে। গজারিয়া ঘাটে ভিড়ার ১০ মিনিট পূর্বে স্প্রীডবোর্টে করে একজন লোক লঞ্চে উঠে। গজারিয়া ঘাট ছাড়ার বেশ কিছুক্ষন পরে থ্রি অ্যাঙ্গেল ডকইয়ার্ড এলাকায় ২ টি স্প্রীডবোর্টে করে ১০/১২ জন ডাকাত লঞ্চে উঠে ফাঁকা গুলি ছুড়ে যাত্রীদের মাঝে আতংক সৃষ্টি করে মোবাইল, নগদ টাকা, মহিলাদের স্বর্নালংকার, যাত্রীদের সাথে থাকা মূল্যবান মালামালসহ সর্বস্ব লুটে নেয়।

এভাবে সংঘবদ্ধ আক্রমনে ৩০ মিনিটের অধিক সময় ধরে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। শেষের দিকে এসে যাত্রীরা ডাক-চিৎকার করলে ফাঁকা গুলি ছোড়তে থাকে ডাকাতেরা। ষাটনল ঘাটে আসার পূর্বেই লঞ্চ থেকে নেমে স্প্রীডবোর্টে করে দিগ্বিদিক ছুটে চলে যায় দলটি।

শুক্রবারের সরকারী ছুটিকে সামনে রেখে এদিন রাজধানী ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ সহ শহরের অধিক চাকুরীজীবিরা লঞ্চটিতে যাতায়াত করছিলো। এই বিষয়টিকে পুঁজি করেই ডাকাতদল পূর্ব-পরিকল্পনা করে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। লঞ্চের নীচতলায়, ক্যাবিনে, আউটডোরে এমনকি ছাদের উপরেও অনেক যাত্রী ছিল। লঞ্চটি নারায়নগঞ্জ ঘাট থেকে প্রতিদিন রাত ৯ টায় গজারিয়া, ষাটনল, মোহনপুর, এখলাছপুর, আমিরাবাদ লঞ্চঘাট হয়ে মতলবে আসে। আগেও এ রুটে বহুবার ডাকাতির এমন ঘটনা ঘটেছিলো।

এর আগে, সড়কপথে গত ২৪ অক্টোবর দিবাগত রাতে উপজেলার গালিমখা এলাকায় রাস্তায় গাছ ফেলে  ডাকাতির উদ্দ্যেশ্যে পুলিশের টহলরত গাড়িতে হামলা চালায় ডাকাতদল। এসময় এলাকাবাসীর সহযোগিতায় তিন জনকে আটক করে পুলিশ।

সম্প্রতি উপজেলায় অতিমাত্রায় চুরি-ডাকাতি আতংকে ব্যাহত হচ্ছে উপজেলার মানুষের স্বাভাবিক জীবন-যাপন। তাই, নদীর ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চলগুলোতে পুলিশ ক্যাম্প স্থাপনের দাবী সহ পুলিশি তৎপরতা জোরদার করার জানান উপজেলাবাসী।

জেলা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন জানান, এ ঘটনায় ইতিমধ্যেই গজারিয়া থানায় মামলা হয়েছে। আমরা নদীকেন্দ্রিক সকল থানা পুলিশের সমন্বয়ে ঘটনায় জড়িতদের আটকের চেষ্টা চালাচ্ছি।

বিআইডব্লিটিএ চাঁদপুর নদী বন্দরের উপ-পরিচালক এ.কে.ম কায়সারুল ইসলাম বলেন, অনাকাঙ্খিত ডাকাতির ঘটনায় প্রশাসনের সাথে সমন্বয় চলছে। জনগনের জানমালের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে চিঠির মাধ্যমে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে এবং লঞ্চ মালিকদের সাথে আলাপের মাধ্যমে ডাকাতি রুখতে নৌ নিরাপত্তা জোরদার করতে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে পুলিশ ক্যাম্পের বিষয়টি তুলে ধরা হবে বলেও জানান তিনি।