শীতের শুরুতেই গরম কাপড় কেনার হিড়িক

◷ ১২:৩৩ অপরাহ্ন ৷ সোমবার, নভেম্বর ২৩, ২০২০ দেশের খবর, খুলনা
কাপড়

খুলনা প্রতিনিধি- শীতের মৌসুম শুরু হয়েছে। প্রকৃতির নিয়মে এ বছরের জন্য আপাতত গরমের বিদায় হয়েছে। রাতের কুয়াশা আর উত্তরের হিমেল বাতাস একটু একটু করে শীতের তীব্রতাকে বাড়িয়ে তুলছে।

শীতে সবচেয়ে বেশি অসহায় অবস্থায় আছেস শ্রমজীবী মানুষ। এ শীত থেকে বাঁচতে তাই তারা ছুটছেন গরম কাপড়ের খোঁজে। তাই শীতবস্ত্র কিনতে তাদের ফুটপাতের দোকানগুলোতে ভিড় করতে দেখা যাচ্ছে।

ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত মার্কেটগুলোতে গরম কাপড়ের চাহিদা বেড়েছে। মৌসুমি ব্যবসায়িরা শহরের অলিতে-গলিতে কাপড়ের দোকান সাজিয়ে বসেছেন। এসব দোকানে কম দামে বিদেশি পুরোনো গরম কাপড় পাওয়া যায়। প্রতিদিন শত শত নারী-পুরুষ আসছেন এ দোকানগুলোতে। সকাল থেকে শুরু করে রাত ১০টা পর্যন্ত এসব দোকান খোলা থাকে। কম পয়সায় পছন্দের গরম কাপড় দেখে শুনে কিনছেন ক্রেতারা।

চিত্রালী মার্কেটের কাপড় ব্যবসায়ী জানান, দোকানে দেশী ও বিদেশী সব ধরনের গরম কাপড় পাওয়া যায়। তবে ক্রেতারা বিদেশী জ্যাকেট ও সোয়েটারের প্রতি বেশ ঝুঁকছে। আমরা গত কয়েকদিন আগে দোকানে গরম কাপড় ওঠাতে শুরু করেছি। গত কয়েক দিন আগে দোকানে তেমন কাপড় বিক্রি হয়নি। তবে আজ দু’দিন ক্রেতাদের আগমন একটু বেশি। বর্তমানে জ্যাকেট ও সোয়েটার বিক্রি বেশি হচ্ছে।

মার্কেটের আরেক এক দোকানী বলেন, মৌসুমের ব্যবসা শুরু হয়ে গেছে। তার দোকানে সব বয়সী মানুষের গরম কাপড় রয়েছে।

খালিশপুর থেকে মার্কেটে আসা রুমানা আক্তার রানু বলেন, বিকালের পর থেকে কুয়াশা দেখা যায়। শীত মানে বাড়তি ঝামেলা। ছেলেকে শীতের প্রকোপ থেকে রক্ষার জন্য তিনি একটি জ্যাকেট ক্রয় করেছেন। তবে গতবারের তুলনায় এবার গরম কাপড়ের দাম একটু বেশি নিয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। বেশি দাম নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে দোকানি করোনাভাইরাসের দোহায় দেন।

অন্যদিকে নিন্ম আয়ের মানুষ খুলনা স্টেডিয়াম মার্কেটের সামনে থেকে সাধ এবং সাধ্যের মধ্যে তাদের প্রিয়জনের জন্য কাপড় ক্রয় করছেন। রহিম নামের একজন ভ্যান চালক আইচগাতি থেকে এসেছিলেন তার পরিবারের জন্য গরম কাপড় ক্রয় করতে। দাম সস্তা থাকায় তিনি এখান থেকে গরম কাপড় ক্রয় করে খুব খুশি।