সিলেটে নববধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

sylet
❏ মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৪, ২০২০ সিলেট

আবুল হোসেন, সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেট নগরীর কাজীটুলা এলাকায় ‘নববধূকে হত্যা করে পালিয়েছেন’ স্বামী। রোববার (২২ নভেম্বর) রাত ১২টার দিকে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

নিহত নববধূর নাম তামান্না বেগম (১৯)। তার পৈতৃক নিবাস দক্ষিণ সুরমা থানার ফুলদি এলাকায়। তবে তারা বর্তমানে গোলাপগঞ্জ উপজেলার এমসি একাডেমি সংলগ্ন এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন। আর পলাতক স্বামীর নাম মো. আল মামুন। তার বাড়ি বরিশালের হোগলার চরে বলে জানিয়েছেন নিহতের পরিবারের সদস্যরা। তবে তার ভোটার আইডি কার্ডে ঠিকানায় উল্লেখ আছে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের বারুতখানা এলাকার নাম।

নিহতের ভাই সৈয়দ আনোয়ার হোসেন জানান, রোববার দিবাগত রাত ৯টার একটু আগে তার বোনের সঙ্গে সর্বশেষ কথা বলেন তার মা। তখন কথাবার্তা ছিল স্বাভাবিক। সোমবার (২৩ নভেম্বর) সকাল থেকে তামান্না ও তার স্বামী আল মামুনের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এমনকি মামুনের আত্মীয় স্বজনের নম্বরও বন্ধ ছিল। এতে তাদের সন্দেহ হয়।

দুপুরের দিকে পুলিশ নিয়ে কাজীটুলার অন্তরঙ্গ এ/৪ নম্বর ভাড়া বাসায় গিয়ে বাইরে থেকে দরজা বন্ধ দেখতে পান তারা। দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে দেখেন বিছানায় তামান্নার লাশ। ধারণা করা হচ্ছে গলায় কিছু পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে তামান্নাকে হত্যা করে পালিয়েছেন তার স্বামী। নিহতের গলায় দাগ দেখা গেছে আর মাথার কাছে পাওয়া গেছে খোলা একটি কেক।

জানা গেছে, পারিবারিক আয়োজনে তামান্নার বিয়ে হয়েছিল গত ৩০ সেপ্টেম্বর গোলাপগঞ্জের খান কমিউনিটি সেন্টারে। স্বামী আল-আমীন নগরীর জিন্দাবাজারের আল মারজান শপিং সেন্টারের ঐশি ফেব্রিক্সের মালিক। বিয়ের আগের দিন ২৯ সেপ্টেম্বর আল মামুন কাজীটুলার বাসাটি ভাড়া নিয়েছিলেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন